বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক বিবৃতিতে সুদানের তথ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে বৈঠকে আবদাল্লাহ হামদক তাঁর বেসামরিক সরকারকে সাংবিধানিকভাবে বৈধ উল্লেখ করে আটক মন্ত্রীদের মুক্তি ও ক্ষমতায় পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবি তুলেছেন। তাঁর মতে, এটাই সুদানে শান্তি ফেরানোর অন্যতম উপায়। এ সময় তিনি সেনাশাসকদের সঙ্গে সমঝোতা আলোচনায় বসতে আগ্রহী নন বলেও জানিয়েছেন।

গত ২৫ অক্টোবর আফ্রিকার দেশ সুদানে সেনা অভ্যুত্থান ঘটান জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল–বুরহান। দেশজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করে আবদাল্লাহ হামদকসহ সুদানের বেসামরিক সরকারের প্রভাবশালী মন্ত্রীদের আটক করা হয়। টানা তিন দশক ক্ষমতায় থাকার পর ২০১৯ সালে প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বশিরের সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করেছিল সুদানের সেনাবাহিনী। এরপর থেকে ক্ষমতা ভাগাভাগি করে দেশটিতে শাসন করছিল সামরিক বাহিনী ও বেসামরিক সরকার।

সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে সুদানের রাজপথ। সেনাবিরোধী সহিংস বিক্ষোভে দেশটিতে আটজনের বেশি মানুষের নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সুদানে সেনা অভ্যুত্থানের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। অভ্যুত্থানের পরিপ্রেক্ষিতে দেশটিকে দেওয়া অর্থসহায়তা স্থগিত করেছে বিশ্বব্যাংক। দেশটিতে চলমান সংকট নিরসনে মধ্যস্থতা শুরু করেছে জাতিসংঘ। সংকট নিরসনে দেশটিতে বিশেষ দূত পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

আফ্রিকা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন