পুলিশ স্টেশন থেকে আদালতে নেওয়ার পথে চো জু-বিন
পুলিশ স্টেশন থেকে আদালতে নেওয়ার পথে চো জু-বিন ছবি: এএফপি

অনলাইনে যৌন অপরাধের দায়ে দক্ষিণ কোরিয়ায় একজনকে ৪০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। আজ বৃহস্পতিবার এ রায় দেওয়া হয় বলে বার্তা সংস্থা ইয়োনহাপ জানায়। দণ্ডিত ব্যক্তির নাম চো জু–বিন (২৪)।

চো জু–বিন এই অপরাধী চক্রের প্রধান। যৌন অপরাধের উদ্দেশ্যে অনলাইন নেটওয়ার্ক পরিচালনার দায়ে দণ্ডিত হন তিনি। ১৬ তরুণীসহ অন্তত ৭৪ জনকে তিনি ব্ল্যাকমেল করেছেন। চক্রটি ২০১৯ সালের মে থেকে ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এসব নারীকে মর্যাদাহানিকর ছবি অনেক সময় যৌনতার ছবি পাঠাতে বাধ্য করেছে।

কর্তৃপক্ষ এটিকে ‘ভার্চ্যুয়াল দাসত্ব’ বলে মন্তব্য করেছে।
ইয়োনহাপের খবরে বলা হয়, পর্নোগ্রাফি ও অপরাধমূলক সংস্থা পরিচালনা করে ফৌজদারি ও শিশু অধিকার আইন লঙ্ঘন করায় চোকে অপরাধী হিসেবে দণ্ডিত করা হয়েছে।

চোকে গত মার্চে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়। তিনি তখন সব ভুক্তভোগীর কাছে ক্ষমা চান।

বিজ্ঞাপন

নাম না প্রকাশ করে একজন বিচারকের বরাত দিয়ে ইয়োনহাপের খবরে বলা হয়, ‘অপরাধী ওই ব্যক্তি ভুক্তভোগী কয়েকজনকে বিভিন্নভাবে প্রলুব্ধ ও হুমকি দিয়ে ছবি সংগ্রহ করে পর্নোগ্রাফি করতেন এবং অনেকের কাছে অর্থের বিনিময়ে এসব দীর্ঘদিন ধরে সরবরাহ করা হতো। এই ব্যক্তি অনেক ভুক্তভোগীর পরিচয় প্রকাশ করেছেন, যা অপূরণীয় ক্ষতি।’

এই ঘটনার পর দেশজুড়ে প্রতিবাদ শুরু হয়েছে। লাখ লাখ কোরিয়ান চোয়ের বিস্তারিত পরিচয় প্রকাশের আরজি জানিয়েছেন। পাশাপাশি শুধু এই নেটওয়ার্ক পরিচালনাকারীদের বিষয়েই নয়, যাঁরা এই নেটওয়ার্কের গ্রাহক তাঁদের বিষয়ে তদন্ত চেয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, গত বছরে একই ধরনের একটি অভিযোগ তদন্ত করতে গিয়ে ১২৪ জন গ্রেপ্তার হন। তাঁদের একজন চো।

মন্তব্য করুন