বিজ্ঞাপন

বর্তমানে দেশজুড়ে করোনাভাইরাসের চতুর্থ ঢেউ সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে জাপান। স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার দেশটির চলমান জরুরি অবস্থা আরও বাড়িয়েছে কর্তৃপক্ষ।

জাপানের বর্তমান করোনা পরিস্থিতি দেশটির স্বাস্থ্যসেবাব্যবস্থায় ব্যাপক চাপ সৃষ্টি করেছে। চিকিৎসাসেবা–সংশ্লিষ্টরা এই খাতে নানা রকমের ঘাটতির বিষয়ে বারবার সতর্ক করেছে।

মানুষের মতামত উপেক্ষা করে আগামী জুলাইয়ে অলিম্পিক আয়োজনের সিদ্ধান্তে এখনো অটল রয়েছে জাপান। বেশির ভাগ মানুষেরই প্রত্যাশা, এবারের টোকিও অলিম্পিক যেন আরও পেছানো হয়। অনেকে তো টোকিও অলিম্পিক-২০২১ বাতিলের পক্ষেই রায় দিয়েছেন।

স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার টোকিও অলিম্পিক বাতিলের জন্য সিটি গভর্নরের কাছে ৩ লাখ ৫১ হাজার মানুষের স্বাক্ষর করা একটি আবেদন জমা দেওয়া হয়।
রাকুটেনের সিইও মিকিতানি মহামারি মোকাবিলায় জাপান সরকারের নানা পদক্ষেপের সমালোচনা করে আসছেন। তিনি মনে করেন, টোকিও অলিম্পিকের বিষয়ে নেওয়া সিদ্ধান্ত থেকে সরকার চাইলে এখনো সরে আসতে পারে। তাঁর মতে, চাইলে সবই সম্ভব।

তবে আয়োজকেরা বলছেন, তাঁরা নিরাপদেই অলিম্পিক গেমস আয়োজন করতে পারবেন।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা শুক্রবার সাংবাদিকদের বলেন, ‘নিরাপদ ও সুরক্ষিত অলিম্পিক গেমস আয়োজন করা সম্ভব। আমরা দৃঢ়ভাবে প্রস্তুতি নিয়ে এগোতে চাই।’

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন