default-image

আটক হওয়ার শঙ্কায় চীন ছেড়েছেন দুই অস্ট্রেলীয় সাংবাদিক। তাঁরা দুজনই চীনে থাকা অস্ট্রেলীয় সংবাদমাধ্যমের সর্বশেষ প্রতিনিধি। মঙ্গলবার সকালে তাঁরা সিডনিতে পৌঁছান বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এই দুই সাংবাদিক হলেন, বিল বার্টলস ও মাইক স্মিথ। বার্টলস দ্য অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং করপোরেশন (এবিসি) ও স্মিথ অস্ট্রেলিয়ান ফাইন্যান্সিয়াল রিভিউ (এএফআর) এর প্রতিনিধি হিসেবে চীনে কর্মরত ছিলেন। চীনে কর্মরত বিদেশি সাংবাদিকদের ক্লাব বলছে, চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে চীন থেকে ১৭ সংবাদকর্মী বহিষ্কার হয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন
default-image

গত ১৪ আগস্ট থেকে চীনে আটক অবস্থায় আছেন চীনে জন্ম নেওয়া অস্ট্রেলীয় সাংবাদিক চ্যাং লি। মূলত লি এর ব্যাপারে গত কয়েক দিন ধরে এই দুই সাংবাদিককে নানা ভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করে আসছে চীনের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

লি কে চীন দেখছে তাদের জাতীয় নিরাপত্তার হুমকি হিসেবে। লি চীনের ইংরেজি ভাষার টিভি চ্যানেল চায়না গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্কের (সিজিটিএন) অর্থনৈতিক বিষয়ক প্রভাবশালী সাংবাদিক ও জনপ্রিয় উপস্থাপক। বার্টলস ও স্মিথ এ বিষয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন করেছিলেন।

চীনের কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত চ্যাং এর বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক কোনো অভিযোগ না আনলেও চলমান তদন্তের অংশ হিসেবে তাকে অজ্ঞাত স্থানে গৃহবন্দী করে রেখেছে।

বিজ্ঞাপন

গত কয়েক দিন আগে চীনের রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা সাংহাই ও বেইজিংয়ে স্মিথ ও বার্টলসের বাসায় ঝটিকা হানা দেয়। এরপর থেকেই তাঁরা লি এর মতো আটক আটক হওয়ার শঙ্কায় ভুগছিলেন। পরে কূটনৈতিক দর-কষাকষি শেষে বেইজিং তাদের ওপর থেকে চীন ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলে তাঁরা নিজ দেশের উদ্দেশ্যে সোমবার রাতে উড্ডয়ন করেন। মঙ্গলবার সকালে সিডনি পৌঁছান।

এই ঘটনা চীন ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে চলমান টানাপোড়েন আরও একধাপ নিচে নিয়ে যাবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকেরা।

মন্তব্য পড়ুন 0