বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এমন প্রেক্ষাপটে আফগানিস্তানে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক রাষ্ট্রদূত রায়ান ক্রোকার গতকাল রোববার এবিসি নিউজের এক অনুষ্ঠানে বলেন, পুরো দেশ দ্রুত তালেবানের দখলে যাওয়ার চেয়েও বড় কথা হলো আফগানিস্তানে একটি দীর্ঘায়িত গৃহযুদ্ধের আশঙ্কা প্রবল।

তালেবান এবার বেশ বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে অগ্রসর হচ্ছে বলে মনে করেন রায়ান। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তালেবান এখন পর্যন্ত রাজধানী কাবুলে বড় ধরনের হামলা শুরু করেনি। ভয় ও আতঙ্কের একটি পরিবেশ সৃষ্টির জন্য তারা যা করছে, তা আংশিকভাবে করছে। আর তারা বিস্ময়করভাবে সফল হচ্ছে।

চলতি আগস্ট মাসের শেষ নাগাদ আফগানিস্তান থেকে বিদেশি সেনা প্রত্যাহার সম্পন্ন হবে। প্রত্যাহারের পর আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র আবার সেনা পাঠাবে—এমনটা মনে করেন না রায়ান।

রায়ান বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বিষয়টি একদম স্পষ্ট করে দিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র আফগান যুদ্ধ থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে। আফগানিস্তানে আর থাকছে না যুক্তরাষ্ট্র।

গত শুক্রবার আফগানিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ নিমরোজের রাজধানী জারাঞ্জ দখলে নেয় তালেবান। পরদিন শনিবার দখল নেয় জাওজান প্রদেশের রাজধানী সেবারঘানের। গতকাল রোববার এক দিনেই দখল নেয় তিনটি প্রাদেশিক রাজধানী কুন্দুজ, সার-ই-পল ও তালুকান।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন