বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নানগারহার প্রদেশে জঙ্গি সংগঠন আইএসের আধিপত্য রয়েছে। ২০১৫ সালে এই প্রদেশে আফগান আইএসের উত্থান। গত আগস্টে আফগানিস্তানে তালেবানের পুনরুত্থানের পর থেকে এই অঞ্চলে প্রভাব আরও জোরদার করেছে আইএস।
চলতি নভেম্বরের শুরুতে কাবুলের ন্যাশনাল মিলিটারি হাসপাতালে পরিচালিত জোড়া বিস্ফোরণে অন্তত ১৯ জনকে হত্যা করে আফগান আইএস। দেশটিতে চলতি বছরের শুরুর দিকে সংখ্যালঘু হাজারা সম্প্রদায়ের দুটি মসজিদে আইএসের হামলায় প্রাণ হারান ১২০ জনের বেশি।

আইএসের ৬০০ জঙ্গি আটক

আফগানিস্তানজুড়ে গত তিন মাসে আইএসের অন্তত ৬০০ জঙ্গিকে আটক করেছেন তালেবান যোদ্ধারা। দেশটির গোয়েন্দা সংস্থার মুখপাত্র খলিল হামরাজ গতকাল বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান।

আফগানিস্তানের সংবাদমাধ্যম টোলো নিউজকে খলিল হামরাজ বলেন, ‘আটক হওয়া ব্যক্তিরা হত্যা ও নাশকতার সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তাঁদের মধ্যে আফগান আইএসের কয়েকজন শীর্ষ সন্ত্রাসী রয়েছেন।’

সম্প্রতি আফগানিস্তানের বিভিন্ন এলাকায় আইএসের ২১টি আস্তানা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ। সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আইএসের মূলোৎপাটনে আমাদের (তালেবানের) চেষ্টা অব্যাহত আছে।’

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন