বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, আজ মঙ্গলবার তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ মন্ত্রিসভার বাকি পদগুলো সম্পর্কে ঘোষণা দেন। যদিও এ ব্যাপারে এখনো বিস্তারিত তথ্য জানা যায়নি। সেখানেই জাবিউল্লাহ মুজাহিদ মেয়েদের স্কুলে যাওয়ার বিষয়ে বলেন, ‘আমরা সবকিছু চূড়ান্ত করছি...এটি যত দ্রুত সম্ভব ঘটবে।’
গত সপ্তাহে স্কুল খোলার ঘোষণা দেয় তালেবান। তবে শুধু ছেলেদের স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত দেয় তারা এবং স্কুলে শুধু পুরুষ শিক্ষকেরাই পাঠদান করবেন বলে ঘোষণায় বলা হয়েছিল। ওই সময় তালেবান বলেছিল, তারা মেয়েদের স্কুল খুলে দেওয়ার বিষয়ে কাজ করছে।

মঙ্গলবার জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বর্তমানে বন্ধ ঘোষিত নারীবিষয়ক মন্ত্রণালয় নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি। গত সপ্তাহে ওই মন্ত্রণালয় বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ মন্ত্রণালয়কে নীতিনৈতিকতাবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে বদল করছে তারা। একসময় এ মন্ত্রণালয় কট্টর ধর্মীয় মতাদর্শ বাস্তবায়নে কাজ করেছিল। বিবিসির তথ্য অনুযায়ী, ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালেবান সরকারের আমলে এ দপ্তর ছিল।

জাবিউল্লাহ মুজাহিদ আরও বলেছেন, নতুন করে তালেবানের অন্তর্বর্তী সরকারে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় যুক্ত হয়েছে। এ ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘আজকে ঘোষিত পদগুলো সরকারকে সচল রাখার জন্য প্রয়োজনীয় বলে মনে করা হচ্ছে।’ এ মাসের শুরুর দিকে প্রথম অন্তর্বর্তী সরকারের কিছু সদস্যের নাম জানিয়েছিল তালেবান।

এদিকে তালেবান ক্ষমতায় আসার পর থেকেই কর্মজীবী নারীদের আইনশৃঙ্খলার উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত ঘরে থাকতে বলা হয়েছে। কাবুলের মেয়র হামদুল্লাহ নোমান সরকারি নারী চাকরিজীবীদের ঘরে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন সম্প্রতি।

দুই দশকের যুদ্ধ শেষে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের মধ্যে গত ১৫ আগস্ট কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। এরপর তালেবানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, এবার নারী অধিকারের প্রতি সম্মান দেখাবে তারা। তবে শরিয়াহ্ আইনের মধ্যে থেকেই তা করা হবে।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন