বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ছয়টি দেশ উত্তর কোরিয়াকে তাদের ‘অস্থিতিশীল কর্মকাণ্ড’ বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে একটি যৌথ বিবৃতি দেওয়ার পরপরই পিয়ংইয়ং আবার ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল।

দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফ অব স্টাফ (জেসিএস) বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমাদের সামরিক বাহিনী উত্তর কোরিয়া থেকে পূর্ব সাগরের দিকে ছোড়া একটি ক্ষেপণাস্ত্র শনাক্ত করেছে। সম্ভবত এটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র।’ দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারা বিস্তারিত জানতে এ নিয়ে কাজ করছেন বলে জানান তিনি।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং–উন ২০২২ সালের নীতিগত অগ্রাধিকারের অংশ হিসেবে দেশের প্রতিরক্ষা জোরদার করার অঙ্গীকার করেন। গত ডিসেম্বরে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকের সময় এই রূপরেখা দেওয়া হয়েছিল। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, তারই অংশ হিসেবে উত্তর কোরিয়া দফায় দফায় এভাবে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ছে।

নতুন বছরে দেওয়া এক ভাষণে কিম জং-উন বলেন, পিয়ংইয়ং প্রতিরক্ষা ক্ষমতা আরও শক্তিশালী করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে। কোরিয়া উপত্যকায় অস্থিতিশীল সামরিক পরিবেশের কারণে পিয়ংইয়ং প্রতিরক্ষা ক্ষমতা বাড়াতে চায় বলেও জানান। এরপর নতুন বছরের প্রথম ১০ দিনে দুটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হলো।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন