এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্রিটিশ ও আমেরিকান পর্যটকদের একটি দলের সঙ্গে ঘটনাটি ঘটেছে কিরগিজস্তানের তিয়ান শেন পর্বতমালায়। ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা ওই ভিডিওতে দেখা যায়, ধেয়ে আসা তুষার তাঁদের ওপর দিয়ে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, হিমবাহের কারণে ওই তুষারপাত হয়েছিল। পর্যটকেরা যে পথ ধরে ট্রেকিং করছিলেন, ওই পাহাড়ের ওপর দিয়ে সেটি ধসে পড়ে। তবে এই ঘটনা ঠিক কবেকার, ভিডিওতে তা উল্লেখ করা হয়নি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের তথ্যমতে, ওই পর্যটকের দলে নয়জন ব্রিটিশ এবং একজন আমেরিকান ছিলেন। তুষারধসের হাত থেকে তাঁদের সবাই বেঁচে গিয়েছিলেন। তবে এক নারীর হাঁটু কেটে গিয়েছিল। পরে তাঁকে ঘোড়ায় চড়িয়ে কাছের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

তুষারপাতের ভিডিও ধারণ করা পর্যটক হ্যারি শিমিন পরে অবশ্য ছবি তোলার জন্য অন্য ট্যুরে চলে গিয়েছিলেন। তিনি বলেন, ‘আমি যখন ছবি তুলছিলাম, তখন পেছনে বরফ ভাঙার বিকট শব্দ শুনতে পেলাম। আমি জানতাম যে গ্রুপের অন্যরা তুষারপাত থেকে আরও দূরে ছিলেন। তাই ভেবেছিলাম সবাই ঠিক থাকবেন।’ তিনি সেখানে কয়েক মিনিট ছিলেন বলে জানান। বলেন, ‘সেখানে খানিক সময় থাকার কারণে আমি জানতাম, আমার ঠিক পেছনে আশ্রয় নেওয়ার মতো একটা জায়গা রয়েছে।’

ঘটনা থেকে বেঁচে যাওয়ার পর পর্যটকদের কেউ আনন্দে হাসছিলেন, কেউ কাঁদছিলেন। শিমিন বলেন, ‘ঘটনার পর বুঝতে পেরেছিলাম যে আমরা কতটা ভাগ্যবান ছিলাম।’ মাত্র এক দিন আগে আপলোড করা ভিডিওটি ১ লাখ ৮৬ হাজার বার দেখা হয়েছে।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন