ইরাকে মার্কিন দূতাবাসের কাছে সশস্ত্র ড্রোন

ড্রোন
প্রতীকী ছবি: রয়টার্স

ইরাকের রাজধানী বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের কাছে চলে আসা একটি সশস্ত্র ড্রোন ভূপাতিত করেছে মার্কিন বাহিনী। স্থানীয় সময় গতকাল সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়, ড্রোনটি যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের কাছে চলে এলে মার্কিন প্রতিরক্ষাব্যবস্থা থেকে বাগদাদের আকাশে রকেট ছোড়া হয়।

ইরাকি নিরাপত্তাসূত্র জানায়, মার্কিন প্রতিরক্ষাব্যবস্থা থেকে ছোড়া রকেটে ড্রোনটি ভূপাতিত হয়। ড্রোনটিতে বিস্ফোরক ছিল।

ইরাকের দুটি নিরাপত্তাসূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, মার্কিন দূতাবাস কম্পাউন্ডে পৌঁছাতে পারেনি ড্রোনটি। তার আগেই সেটিকে ভূপাতিত করা হয়। এ ঘটনায় দূতাবাসের কোনো ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহত হওয়ার তথ্য পাওয়া যায়নি।

দূতাবাসের কাছে ড্রোন আসার কয়েক ঘণ্টা আগে ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলে মার্কিন সেনাদের অবস্থান রয়েছে—এমন একটি ঘাঁটি লক্ষ্য করে একটি রকেট হামলা হয়।

চলতি বছরের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ইরাকে মার্কিন স্বার্থকে নিশানা করে অন্তত ৪৭টি হামলা হয়েছে। এই ৪৭টি হামলার মধ্যে ছয়টি ছিল ড্রোন হামলা।

ড্রোন ব্যবহার করে হামলা চালানোর বিষয়টি ইরাকে অবস্থানরত মার্কিন বাহিনীর জন্য মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠেছে। কারণ, ইরাকে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থাকে ফাঁকি দিতে পারে ড্রোন।

ড্রোন হামলা নিয়ে দুশ্চিন্তা থেকে সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ইরাকে মার্কিন স্থাপনা লক্ষ্য করে হামলার বিষয়ে তথ্য দিতে পুরস্কার ঘোষণা করে। এই পুরস্কারের পরিমাণ তিন মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক জোটের লড়াইয়ের অংশ হিসেবে বর্তমানে ইরাকে প্রায় ২ হাজার ৫০০ মার্কিন সেনা রয়েছে।