ইসরায়েলি ড্রোন ভূপাতিত করার দাবি হিজবুল্লাহর

বিজ্ঞাপন
default-image

গুলি চালিয়ে ইসরায়েলের একটি ড্রোন ভূপাতিত করেছে বলে দাবি করেছে লেবাননের শিয়াপন্থী মিলিশিয়া সংগঠন হিজবুল্লাহ। লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলের শহর রামিয়াতে আজ সোমবার এই ড্রোনটি ভূপাতিত করা হয়েছে বলে দাবি করেছে হিজবুল্লাহ।

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইরান সমর্থিত সংগঠন হিজবুল্লাহ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ভূপাতিত ড্রোনটি এখন তাদের জিম্মায় আছে। সংগঠনটি জানিয়েছে, ড্রোনটি লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলের দিকে এগোচ্ছিল। ‘যথাযথ অস্ত্র’ ব্যবহার করে ড্রোনটিকে ‘মোকাবিলা’ করা হয়েছে।

তবে ড্রোন ভূপাতিত হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করলেও হিজবুল্লাহর আক্রমণে ভূপাতিত হওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছে ইসরায়েল। ঠিক কী কারণে ড্রোনটি ভূপাতিত হয়েছে, সে বিষয়েও সুনির্দিষ্ট কোনো ব্যাখ্যা দেয়নি ইসরায়েল। এক বিবৃতিতে ইসরায়েল জানিয়েছে, ‘রুটিন কার্যক্রম চালানোর সময় লেবাননের অভ্যন্তরে ড্রোনটি ভূপাতিত হয়েছে। তবে ড্রোনটি থেকে কোনো তথ্য পাচার হয়নি।’

আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হিজবুল্লাহর দাবি সত্য হয়ে থাকলে ২০০৬ সালের পর এই প্রথমবারের মতো ইসরায়েলি কোনো ড্রোন ভূপাতিত করল হিজবুল্লাহ। সাম্প্রতিক সময়ে ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তে বেশ কয়েকবার গুলি বিনিময় করেছে ইসরায়েল ও হিজবুল্লাহ। গত সপ্তাহেই ইসরায়েল অভিযোগ করেছিল, লেবাননের বেকা ভ্যালিতে ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির কারখানা তৈরি করছে হিজবুল্লাহ। তবে এমন দাবি পুরোপুরি অস্বীকার করেছে হিজবুল্লাহ।

হিজবুল্লাহকে নিজেদের সীমান্তে সবচেয়ে বড় সামরিক হুমকি মনে করে ইসরায়েল। ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর দাবি, হিজবুল্লাহর কাছে ১ লাখ ৩০ হাজার রকেট ও ক্ষেপণাস্ত্রের বিপুল সংগ্রহ আছে। ২০০৬ সালে সীমান্তে প্রায় মাসব্যাপী সশস্ত্র লড়াইয়ে জড়িয়েছিল ইসরায়েল ও হিজবুল্লাহ। 

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন