default-image

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং–উন দেশটির ক্ষমতাসীন দল ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম কেসিএনএ আজ সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে। দেশটির ওয়ার্কার্স পার্টিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচিত হয় সাধারণ সম্পাদক পদটি।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়ার ওয়ার্কার্স পার্টির সম্মেলন থেকে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর আগে দলটির চেয়ারম্যান ছিলেন কিম জং–উন। সম্মেলনের মাধ্যমে সাধারণ সম্পাদক পদে বসলেন তিনি। কেসিএনএর খবরে বলা হয়েছে, ‘সর্বসম্মতিক্রমে’ দলের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

কিম জং–উনের আগে সাধারণ সম্পাদক পদে ছিলেন তাঁর বাবা কিম জং-ইল। ১৯৯৪ সালে বাবা মারা যাওয়ার পর ইল দেশটির নেতা হয়েছিলেন। ১৯৯৭ সালে তিনি দলে সাধারণ সম্পাদক পদে বসেন। এরপর ২০১১ সালে মারা যান জং-ইল। পরে দেশটির নেতা হন তাঁর ছেলে কিম জং–উন। কিন্তু উন মূলত পার্টির চেয়ারম্যান ছিলেন। এরপর গতকাল তাঁর সাধারণ সম্পাদক হওয়ার ঘোষণা এল।

বিজ্ঞাপন

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, পার্টির সম্মেলনের মাধ্যমে বেশ কিছু পরিবর্তন এসেছে। নতুন কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পাননি কিম জং–উনের বোন কিম ইও জং। এ প্রসঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলের ওয়ার্ল্ড ইনস্টিটিউট ফর নর্থ কোরিয়ার গবেষক আহন চান-ইল বলেন, কিম জং-উন তাঁর নিজের ভাবমূর্তি তৈরি করতে চাইছেন এবং নতুন যুগের সূচনা করতে চাইছেন, যা হবে তাঁর বাবার আমলের চেয়ে আলাদা। কিন্তু পার্টির চেয়ারম্যান হয়ে তিনি তা করতে পারছিলেন না। তিনি বলেন, এ ছাড়া কিম এই পরিবর্তন আনার মধ্য দিয়ে এটা স্বীকার করে নিলেন, ২০১৬ সালে তিনি যে পরিবর্তন এনেছেন, তা কাজ করেনি।

এদিকে কিম জং–উনের বোনকে পলিটব্যুরো থেকে বাদ দেওয়ায় নতুন গুঞ্জন শুরু হয়েছে। দলে কিম ইও–জংয়ের প্রভাব বেড়ে যাওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কি না, এ নিয়েও প্রশ্ন উঠছে।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন