করোনামুক্ত ফিজি যেভাবে এ ভাইরাসকে জয় করল

বিজ্ঞাপন
default-image

দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরের দ্বীপ রাষ্ট্র ফিজি এখন করোনাভাইরাস-মুক্ত। দেশটির পক্ষ থেকে আজ শুক্রবার এই ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী ফ্রাঙ্ক বাইনিমারামার মতে, প্রার্থনা, পরিশ্রম ও বিজ্ঞান দিয়ে করোনা জয় করেছেন তাঁরা। বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।

ফিজির সবশেষ কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র পাওয়ার পর দেশটি নিজেকে করোনামুক্ত ঘোষণা করে। এতে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ফিজিকে একটি সফল দেশ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

ফিজির মোট জনসংখ্যা প্রায় ৯৪ হাজার। গত মার্চের মাঝামাঝি ফিজিতে প্রথম করোনা-সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়। এ ঘোষণা আসার পর দেশটির মানুষের মধ্যে ভীতি ছড়িয়ে পড়ে। তবে দেশটির কর্তৃপক্ষ করোনার বিস্তার ঠেকাতে কঠোর পদক্ষেপ নেয়।

আইসোলেশনের ক্ষেত্রে ফিজির নেওয়া পদক্ষেপ ছিল বেশ কড়া। তা ছাড়া তারা সীমান্ত নিয়ন্ত্রণেও ছিল বেশ কঠোর। এসব কড়াকড়ির কারণে ফিজিতে করোনা মোটেই সুবিধা করে উঠতে পারেনি। দেশটিতে সর্বোচ্চ ১৮ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী ফ্রাঙ্ক বাইনিমারামা আজ টুইট করে ঘোষণা দেন, ফিজির সবশেষ কোভিড–১৯ রোগীকে সুস্থতার ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ফিজির সাফল্যের রহস্য ব্যাখ্যা করতে গিয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ফ্রাঙ্ক বাইনিমারামা স্রষ্টার কাছে প্রার্থনা, কঠোর পরিশ্রম ও বিজ্ঞানের ওপর গুরুত্বােরাপ করেন।

প্রধানমন্ত্রী জানান, তাঁরা দিন দিন করোনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়িয়েছেন। গত ৪৫ দিন ধরে দেশে কোনো নতুন রোগী শনাক্ত হয়নি। ফিজিতে কেউ মারা যায়নি। আক্রান্ত রোগীদের সেরে ওঠার হার ১০০ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন