বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ১৩ থেকে ২০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৫২ জন। তালেবান সংস্কৃতি কমিশনের সদস্য আবদুল কাহার বলখি এক তুর্কি টেলিভিশনকে বলেন, ‘এটা সন্ত্রাসবাদী হামলা। বিদেশি সেনা উপস্থিতির কারণে এই হামলা হয়েছে। আমরা আর এমন হামলা চাই না। সারা বিশ্বের উচিত এই হামলার নিন্দা জানানো।’ তালেবানের আরেক মুখপাত্র সুহাইল শাহিন টুইটারে এক বিবৃতিতে বলেন, হামলার ঘটনা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে এবং জনগণের নিরাপত্তার বিষয়ে মনোযোগ দিচ্ছে তালেবান।

কাবুল বিমানবন্দরে হামলার পরপরই মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি টুইট বার্তায় বলেন, কাবুল বিমানবন্দরের আবে ফটকের বাইরে মার্কিন ও ব্রিটিশ বাহিনীর অবস্থানস্থলের পাশে বিস্ফোরণে মার্কিন ও আফগান বেসামরিক লোকজন হতাহত হয়েছেন। পাশের ব্যারন হোটেলের সামনে আরও একটি বিস্ফোরণ ঘটেছে।

পেন্টাগনের এক বিবৃতিতে বলা হয়, কাবুলে জোড়া বিস্ফোরণে ১২ মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে। এ ছাড়া আহত কয়েকজনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। জঘন্য এই হামলায় আফগান বেসামরিক মানুষও হতাহত হয়েছে। হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ওয়াশিংটন।

মার্কিন গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, হামলায় ১১ মেরিন সেনা ও নৌবাহিনীর একজন চিকিৎসক নিহত হয়েছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুজন মার্কিন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, কমপক্ষে এক ডজন মার্কিন সেনা নিহত হয়েছেন।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন