default-image

স্বল্পপাল্লার দুটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে উত্তর কোরিয়া। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সফরের পর উত্তর কোরিয়া এ ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এটিকে বড় ধরনের উসকানি বলে মনে করছেন না। খবর এএফপির।

বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথমবার পরমাণু শক্তিধর দেশটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং–উনের কয়েকবার বৈঠক হয়। তবে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কোনো অগ্রগতি হয়নি।

মার্কিন প্রশাসনিক কর্মকর্তারা স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার উত্তর কোরিয়ার স্বল্পমাত্রার দুটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার বিষয়টি জানিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রশাসন বলছে, সেনাবাহিনীর নিয়মিত পরীক্ষার অংশ হিসেবে এটি উৎক্ষেপণ করা হয়েছে। উত্তর কোরিয়া জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের নিয়মের বাইরে যায়নি বলে তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ প্রশাসনিক কর্মকর্তা সাংবাদিকদের জানান, উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা অথবা আন্তমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মতো কোনো কর্মকাণ্ড চালায়নি। এর আগে ওয়াশিংটনকে যেভাবে প্ররোচিত করা হয়েছিল, সে ধরনের কোনো কর্মকাণ্ড চালায়নি পিয়ংইয়ং। প্রশাসনের আরেক কর্মকর্তা বলেছেন, বিভিন্ন পরীক্ষা চালানো উত্তর কোরিয়ার নিয়মিত কাজ। আমাদের সব ধরনের পরীক্ষায় প্রতিক্রিয়া জানানোর প্রয়োজন নেই।

এ মাসের শুরুর দিকে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী যৌথ কুচকাওয়াজ করে। টোকিও ও সিউলে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন কয়েক দিন আগে সফর করেছেন। এরপরই সরকারি টিভিতে কোনো ঘোষণা না দিয়ে পিয়ংইয়ং ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল।

মার্কিন কর্মকর্তাদের সফরকালে যুক্তরাষ্ট্রের ঘুম নষ্ট করে দেবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং–উনের বোন। পিয়ংইয়ংয়ের সরকারি পত্রিকা ‘রডং সিনমুন’-এর খবরে জানানো হয়, উনের বোন ওই বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রশাসনের উদ্দেশে বলেন, ‘তারা আমাদের মাটিতে বারুদের গন্ধ ছড়ানোর চেষ্টা করছে।’

চীনে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের পর থেকে উত্তর কোরিয়া সীমান্ত বন্ধ রেখেছে। গত জানুয়ারিতে বাইডেনের অভিষেকের আগে কিম জং-উন যুক্তরাষ্ট্রকে প্রধান শত্রু হিসেবে চিহ্নিত করেন। ওই মাসেই সামরিক কুচকাওয়াজে পিয়ংইয়ং সাবমেরিন থেকে নিক্ষেপ করা যায় এমন নতুন ধরনের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের প্রদর্শনী করে। তবে বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথম ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল উত্তর কোরিয়া।

বিজ্ঞাপন
এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন