default-image

খেতাব বর্জন করেছেন ‘মিসেস ওয়ার্ল্ড ২০২০’ বিজয়ী ক্যারোলাইন জুরি। শ্রীলঙ্কায় চলতি মাসে মিসেস শ্রীলঙ্কা প্রতিযোগিতায় অনাকাঙ্ক্ষিত এক ঘটনার পর তিনি ‘মিসেস ওয়ার্ল্ড’ খেতাব বর্জনের সিদ্ধান্ত নেন।

অনাকাঙ্ক্ষিত ওই ঘটনার পরই ক্যারোলাইন জুরি খেতাব বর্জনের সিদ্ধান্ত নিলেও মিসেস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার আয়োজক কমিটি গতকাল মঙ্গলবার এ কথা জানায়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, মিসেস ওয়ার্ল্ড ইনকরপোরেশন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এক বিবৃতিতে বিষয়টি জানিয়েছে। বিবৃতে বলা হয়েছে , ক্যারোলাইন জুরির স্বেচ্ছায় খেতাব বর্জন করার সিদ্ধান্ত একান্তই তাঁর।

তবে এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে ক্যারোলাইন জুরির বক্তব্য জানতে পারেনি রয়টার্স।

ক্যারোলাইন জুরি ২০১৯ সালে মিসেস শ্রীলঙ্কা নির্বাচিত হয়ে পরের বছর লাসভেগাসে মিসেস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। সেখানে তিনি বিজয়ীর মুকুট মাথায় তোলেন। নির্বাচিত হন ‘মিসেস ওয়ার্ল্ড ২০২০’। তবে তাঁর মিসেস ওয়ার্ল্ড খেতাব বর্জনের কারণে ২০২০ সালের আয়ারল্যান্ডের রানার-আপ কেট স্নাইডার ওই বছরের মিসেস ওয়ার্ল্ডের মর্যাদা পাবেন।

বিজ্ঞাপন

আয়োজক সংস্থা জানিয়েছে , বিষয়টি দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। ফলে শ্রীলঙ্কায় মিসেস ওয়ার্ল্ড ২০২১ প্রতিযোগিতা আয়োজনে কোনো প্রতিবন্ধকতা হবে না।

চলতি মাসে শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে জাতীয় টিভি চ্যানেলে এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ২০২১ সালের মিসেস শ্রীলঙ্কান খেতাব জিতে নেন পুষ্পিকা ডি সিলভা। তাঁর মাথায় মুকুট পরিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু পরক্ষণেই ২০১৯ সালের বিজয়ী ক্যারোলাইন জুরি অভিযোগ করেন, পুষ্পিকার বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে, তাই তিনি এ খেতাবের অধিকারী হতে পারবেন না। শুধু অভিযোগেই ক্ষান্ত হননি জুরি। তিনি পুষ্পিকার মাথা থেকে মুকুট ছিনিয়ে নেন।

পরে এ নিয়ে থানায় অভিযোগ করেন পুষ্পিকা। জুরি এ ঘটনায় থানায় জবানবন্দি দিতে গেলে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে জামিনে ছাড়া পান তিনি।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন