default-image

‘মন হতে প্রেম যেতেছে শুকায়ে, জীবন হতেছে শেষ’—এটা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কথা। ঠিক এই কথা জাপানের ধনকুবের ইউসাকু মেইযাওয়ার মনেও বেজে উঠেছে কি না জানা নেই। তবে তিনি ‘জীবনসঙ্গী’ খুঁজছেন। কারণ, তিনি চাঁদে যাবেন। অজানা এই পথ তিনি একা পাড়ি দিতে চান না। তাই একটা চাঁদমুখ খুঁজছেন।

১৯৭২ সালের পর ২০২৩ সালে প্রথম চাঁদ প্রদক্ষিণে যাবে মানুষ। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এই মিশনে থাকবেন ইউসাকু। কিন্তু জীবনের এত বড় একটি অধ্যায়ে একা পা রাখতে চান না ইউসাকু। ৪৪ বছর বয়সী এই ধনকুবের চাইছেন, জীবনের বিশেষ এই অধ্যায়ে তাঁর পাশে আপন কেউ থাকুক। ঠিক এ কারণেই নিজের ওয়েবসাইটে একপ্রকার বিজ্ঞাপনই দিয়ে বসেছেন তিনি।

ইউসাকু ওই ব্লগপোস্টে লিখেছেন, তিনি এই অভিজ্ঞতা একজন বিশেষ নারীর সঙ্গে ভাগাভাগি করতে চান। তাঁর এই সঙ্গী খোঁজার পেছনে বড় কারণ হলো, সম্প্রতি তাঁর প্রেমিকা আয়ামি গোরিকি (২৭) তাঁকে ছেড়ে চলে গেছেন। এরপর থেকে একা রয়েছেন তিনি। এই একাকিত্ব ঘোচাতে আগ্রহী নারীদের আবেদন করার আহ্বান জানিয়েছেন ইউসাকু।

ইউসাকু তাঁর ওয়েবসাইটে লিখেছেন, ‘একাকিত্ব আর শূন্যতা আমাকে ঘিরে ধরতে শুরু করেছিল। তারপরই হঠাৎ আমার মনে হলো, একজন নারীকে আবারও ভালোবাসতে শুরু করি। আমি একজন নারী সঙ্গী খুঁজে পেতে চাইছি।’

ইউসাকু বলেন, ‘এই নারী হবেন আমার জীবনসঙ্গী। আমি এই পৃথিবীকে যেমন আমার ভালোবাসার কথা জানিয়ে দিতে চাই, তেমনি পৃথিবীর বাইরেও সেই ভালোবাসার জানান দিতে চাই।’

তবে যেকোনো নারী চাইলেই ইউসাকুর জীবনসঙ্গী হতে পারবেন না। এ ক্ষেত্রে এই ধনকুবেরের কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে। ব্লগপোস্টে ইউসাকু লিখেছেন, তাঁর জীবনসঙ্গী হতে ইচ্ছুকের বয়স হতে হবে ২০ বছরের বেশি। ব্যক্তিগত জীবনে তাঁর মতোই একা হতে হবে। অর্থাৎ কোনো প্রেমিক বা স্বামী থাকা চলবে না। মহাকাশ ভ্রমণে আগ্রহী হওয়ার পাশাপাশি হতে হবে ইতিবাচক মনোভাবের। ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। মার্চের শেষে জানা যাবে, কে হচ্ছেন ইউসাকুর জীবনসঙ্গী।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0