বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জাতিসংঘকে দেওয়া চিঠিতে তালেবান বলে, ক্ষমতাচ্যুত আফগান সরকার-নিযুক্ত জাতিসংঘের স্থায়ী প্রতিনিধি গোলাম ইসাকজাইকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইসাকজাই আর আফগানিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করছেন না। তাঁর জায়গায় সুহাইল শাহিনকে তারা স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছে। সুহাইল তালেবানের অন্যতম মুখপাত্র।

গত সোমবার তালেবানের পক্ষ থেকে জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের কাছে একটি চিঠি দেওয়া হয়। চিঠিতে এবারের অধিবেশনে তালেবানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকিকে অংশ নেওয়ার সুযোগ দিতে আবেদন জানানো হয়।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে কে বা কারা যোগ দিতে পারবে, তা নির্ধারণ করে সংস্থার নয় সদস্যের ক্রিডেনশিয়াল কমিটি। এই কমিটিতে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীন রয়েছে। এ ব্যাপারে কমিটির একটি বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বৈঠকটি হয়নি বলে জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন। ফলে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের চলতি অধিবেশনে তালেবানের অংশ নেওয়ার খায়েশ ভেস্তে গেছে।

এক কূটনীতিক এএফপিকে জানান, জাতিসংঘের কাছে আবেদন পাঠাতে অনেক দেরি করে ফেলেছে তালেবান। এ কারণে গোলাম ইসাকজাইয়ের এই অধিবেশনে অংশ নেওয়ার সুযোগ বহাল থাকে। তিনি এখনো জাতিসংঘ স্বীকৃত আফগান প্রতিনিধি।

অধিবেশনের শেষ দিনে ইসাকজাই অংশ নিয়ে বক্তব্য দিলে তা তালেবানের জন্য বিব্রতকর হতে পারে। তিনি তালেবানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জোরদার করার দাবি তুলতে পারেন। ৯ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে তিনি একই দাবি তুলেছিলেন।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের চলমান অধিবেশনে ইতিমধ্যে বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা ভাষণ দিয়েছেন। আফগানিস্তান, মিয়ানমার ও গিনির প্রতিনিধিদের ভাষণের মধ্যে দিয়ে আজ এই অধিবেশন শেষ হওয়ার কথা। তবে এদিন মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত কিয়াও মোয়ে তুন অধিবেশনে বক্তব্য রাখতে পারছেন না। এ ব্যাপারে একমত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীন।

মিয়ানমারে গত ফেব্রুয়ারিতে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলের পর কিয়াও মোয়ে তুনকে বরখাস্ত করে দেশটির জান্তা সরকার। তাঁর স্থলে একজন সাবেক জেনারেলকে নিয়োগ দেওয়া হয়। তবে তাঁর নিয়োগ অনুমোদন করেনি জাতিসংঘ।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন