বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিমানবন্দরটির ভারপ্রাপ্ত পরিচালক স্পিন ঘার শাহজাদ বলেন, কারিগরি কর্মীদের আবার তাঁদের দায়িত্বে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। কারিগরি কাজ পরিচালনার জন্য তাঁদের সব ধরনের সক্ষমতা রয়েছে। সব কারিগরি কর্মী এখন বিমানবন্দরে আছেন। এখন ফ্লাইট চলাচল দেখা যাবে।

নানগারহার প্রদেশের নিরাপত্তা বিভাগের প্রধান শেখ নেদা আহমেদ বলেন, ‘আমরা আমাদের নাগরিক ও বিশ্বকে এই বলে আশ্বস্ত করছি যে নানগারহার (জালালাবাদ) বিমানবন্দর ফ্লাইট চলাচলের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত।’

এদিকে আফগানিস্তানবিষয়ক ইরানের বিশেষ দূত তালেবান কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করতে ইতিমধ্যে দেশটির রাজধানী কাবুলে পৌঁছেছেন। উভয় পক্ষ মানবিক সহায়তাসহ বেশ কিছু বিষয়ে সহযোগিতা জোরদার করতে সম্মত হয়েছে।

গত ১৫ আগস্ট কাবুল দখল করে তালেবান। তালেবানের কাবুল দখলের মধ্য দিয়ে আফগানিস্তানে মার্কিন-সমর্থিত সরকারের পতন ঘটে। পরের মাসে আফগানিস্তানের অন্তর্বর্তী সরকার গঠনের ঘোষণা দেয় তালেবান।

তালেবানের ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তান অর্থনৈতিক, মানবিক ও নিরাপত্তা সংকটে ভুগছে।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন