বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আল–জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত ওই ফিলিস্তিনির নাম ফাদি মাহমুদ আবু-শেখেইদেম। তাঁর বয়স ৪২ বছর। ফাদি জেরুজালেমের শুয়াফাত শরণার্থীশিবিরের বাসিন্দা ছিলেন। তিনি ফিলিস্তিনিদের সশস্ত্র সংগঠন হামাসের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। হামাসের পক্ষ থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে আল–জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফাদি মাহমুদ আবু-শেখেইদেম সেখানকার একটি বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতেন।
ইসরায়েলি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, ফাদির হামলায় একজন ইসরায়েলি মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছেন। তাঁর বয়স ৩০-এর কোঠায়। তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ৪৬ বছর বয়সী আরেকজন ইসরায়েলি নাগরিক আহত হয়েছেন। তিনিসহ আহত দুই পুলিশ সদস্যের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে হতাহত ব্যক্তিদের পরিচয় প্রকাশ করেনি দেশটির কর্তৃপক্ষ।

এই ঘটনার পর জেরুজালেমের শুয়াফাত শরণার্থীশিবিরে ফাদির বাড়ি ও তাঁর কর্মস্থলে তল্লাশি চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। এ সময় ফাদির মেয়ে, ভাই ও ভাতিজাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। স্থানীয় তরুণেরা বাধা দিতে গেলে কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে তাঁদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী। এ সময় সাংবাদিকদের ওই ঘটনার ভিডিও করতে দেওয়া হয়নি।

দখলকৃত পূর্ব জেরুজালেমে একজন সশস্ত্র ইসরায়েলির গুলিতে ১৬ বছরের ফিলিস্তিনি কিশোর ওমর আবু আসাবের মৃত্যুর পর গতকাল ফাদি মাহমুদ আবু-শেখেইদেম নিহত হলেন। গত শতকের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের পর থেকে জেরুজালেমের বড় একটি অংশ ইসরায়েলের দখলে রয়েছে।

এদিকে ফিলিস্তিনের গাজার শাসকগোষ্ঠী হামাসকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করার পথে রয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল বলেছেন, সংগঠন হিসেবে পুরো হামাসকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করতে একটি পথ খুঁজছেন তিনি। ইতিমধ্যে হামাসের সামরিক শাখাকে সন্ত্রাসী সংগঠন ঘোষণা করেছে যুক্তরাজ্য।

এবার সংগঠনটির রাজনৈতিক শাখাকেও সন্ত্রাসীর তকমা দেওয়ার পথে হাঁটছে দেশটি।
যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) হামাসকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে ১৯৯৫ সালে। প্রীতি প্যাটেল বলেন, মিত্রদের সঙ্গে মিল রেখে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। ইসরায়েল যুক্তরাজ্যের এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে।

১৯৮৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হামাসের রয়েছে রাজনৈতিক ও সামরিক শাখা। ইসরায়েলের অস্তিত্ব ও ইসরায়েলের সঙ্গে যেকোনো শান্তি আলোচনার বিরোধী হামাস। আলোচনার বদলে হামাসের সামরিক শাখা ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড দখল করা ইসরায়েলের বিরুদ্ধে সশস্ত্র প্রতিরোধ আন্দোলনে বিশ্বাসী। চলতি বছরের মে মাসে হামাসের যোদ্ধাদের সঙ্গে ইসরায়েলি বাহিনীর ব্যাপক সংঘর্ষে নারী ও শিশুসহ আড়াই শর বেশি ফিলিস্তিনি এবং ১৩ জন ইসরায়েলি নিহত হন।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন