default-image

জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে অভিনব প্রতিবাদ করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মমতা তাঁর কালীঘাটের বাসভবন থেকে সচিবালয় নবান্নে এলেন গাড়ির পরিবর্তে ইলেকট্রিক স্কুটারে চেপে। সে সময় মমতার গলায় ঝুলছিল প্রতিবাদী ব্যানার।

কিছুদিন ধরে লাগামহীনভাবে বেড়ে চলছে জ্বালানি তেলের দাম। পেট্রলের লিটার এখন প্রায় ৯২ রুপি। গত এক মাসে তিন দফায় রান্নার গ্যাসের দাম বেড়েছে ১০০ রুপি। এই পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে আজ পথে নেমেছেন মমতা। এদিন মমতার নিরাপত্তারক্ষীরাও ছিলেন ইলেকট্রিক স্কুটারে। তবে এই অভিনব প্রতিবাদে কোনো দলীয় পতাকা ছিল না।

বিজ্ঞাপন

সচিবালয়ে পৌঁছে মমতা ঘোষণা দেন, আগামীকাল শুক্রবার থেকে রাজ্যজুড়ে এই পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ব্যাপক আন্দোলন শুরু হবে। তিনি মোদি সরকারকে ‘ভাঁওতাবাজ সরকার’ বলে সমালোচনা করে বলেন, ‘এবার এই পেট্রোপণ্যকে জিএসটির আওতায় আনতে হবে। আজ বাংলার রান্নাঘরে আগুন লেগেছে। ভোট এলে ওরা বলে বিনা মূল্যে গ্যাস দেবে। অথচ এখন উল্টো গ্যাসের দাম বাড়িয়ে দেয়। এর থেকে বড় ভাঁওতাবাজ সরকার নেই।’

একই সঙ্গে মোদির নামবদলের রাজনীতির কঠোর সমালোচনা করেন মমতা। তিনি বলেন, এখন গুজরাটের মোতেরা স্টেডিয়ামের নাম বদলিয়ে রেখেছেন মোদি স্টেডিয়াম। মোদি সরকার দেশবিরোধী। আজ পারলে সব বিক্রি করে দেয়। নাম পাল্টে দেয়। এরা কোনো দিন না দেশের নামটিই পাল্টে দেন!

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন