বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

করোনা মহামারির প্রভাবে থাইল্যান্ডের পর্যটনশিল্প নাজুক হয়ে পড়েছে। এ খাতকে পুনরুজ্জীবিত করার জন্য কিছু দেশের পূর্ণ ডোজ টিকা নেওয়া পর্যটকদের জন্য থাইল্যান্ডের আকাশপথ উন্মুক্ত করার পরিকল্পনাকে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে।

করোনা মহামারির আগে থাইল্যান্ডে বছরে কয়েক কোটি পর্যটক আসতেন। থাইল্যান্ডের জাতীয় আয়ে পর্যটন খাতের অবদান প্রায় ২০ শতাংশ। কিন্তু করোনা-সম্পর্কিত ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় বড় ধরনের বিপর্যয়ের মুখে পড়ে দেশটির পর্যটন খাত।

কম ঝুঁকিপূর্ণ ১০ দেশের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, চীন, সিঙ্গাপুরের নাম থাকতে পারে বলে উল্লেখ করেন প্রাউত চান-ওচা। পূর্ণ তালিকা চলতি মাসের শেষের দিকে প্রকাশিত হতে পারে।

প্রাউত চান-ওচা গতকাল জানান, ওই ১০ দেশের পূর্ণ ডোজ টিকা নেওয়া পর্যটকদের থাইল্যান্ডে এসে করোনার ‘নেগেটিভ’ সনদ দেখাতে হবে। থাইল্যান্ডে আসার পর তাঁদের করোনা পরীক্ষা করতে হবে। এ পরীক্ষায় ‘নেগেটিভ’ এলে তাঁরা থাইল্যান্ডে অবাধে ভ্রমণ করতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে তাঁদের থাইল্যান্ডে এসে আর কোয়ারেন্টিন করতে হবে না।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন