বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ ঘটনার সময় সন্দেহভাজন হামলাকারী হ্যালোইন উৎসবের মুখোশ পরা ছিলেন। তাঁর বয়স ২৪ বছর। তবে তাঁর নাম–পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। প্রাথমিকভাবে হামলার কারণ জানাতে পারেনি পুলিশ।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ট্রেনে হামলার ঘটনায় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর। অন্যদিকে এএফপি জানিয়েছে, আহতের সংখ্যা ৮। আর জাপানি সংবাদমাধ্যম কিয়োদো নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে হামলার পরপর ট্রেনের ওই বগির জানালা দিয়ে নামতে দেখা যায় আতঙ্কিত যাত্রীদের। আজ ছিল জাপানের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের নির্বাচনের ভোট গ্রহণের দিন। রাত আটটায় ভোট গ্রহণ শেষ হওয়ার পর এ হামলা হয়।

জাপানে সহিংস ঘটনা সচরাচর দেখা যায় না। দেশটিতে কঠোর আগ্নেয়াস্ত্র আইন কার্যকর রয়েছে। তবে টোকিওতে গত আগস্টে একটি কমিউটার ট্রেনে ছুরি নিয়ে হামলার ঘটনায় নয়জন আহত হন। ২০১৯ সালে দেশটিতে বাসের জন্য অপেক্ষা করার সময় আরেক হামলায় স্কুলছাত্রীসহ দুজন নিহত হয়। ওই হামলায় আহত হন কয়েকজন।

এর আগে ২০১৮ সালে জাপানের মধ্যাঞ্চল থেকে একজনকে আটক করে পুলিশ। তিনি বুলেট ট্রেনে ছুরি নিয়ে হামলা চালিয়ে একজনকে হত্যা ও আরও দুজনকে আহত করেছিলেন।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন