বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত মাসে আফগানিস্তানের ক্ষমতা নেওয়া তালেবান নেতৃত্ব চাইছে জাতিসংঘের মতো মঞ্চ থেকে স্বীকৃতি পেতে। তারা জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে ইচ্ছাও প্রকাশ করেছে। এ জন্য জাতিসংঘকে একটি চিঠি দিয়েছে তালেবান।

২০ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের অধিবেশন শুরু হয়। এই অধিবেশন চলবে ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

জাতিসংঘে তালেবানের প্রতিনিধির বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ পাওয়া নিয়ে সন্দেহ-সংশয় রয়েছে। কারণ, জাতিসংঘে তালেবানের প্রতিনিধির বক্তব্য পেশ করতে দেওয়ার অর্থ হলো তাদের শাসনকে স্বীকৃতি দেওয়া।

জাতিসংঘকে দেওয়া চিঠিতে তালেবান বলেছে, ক্ষমতাচ্যুত আফগান সরকার–নিযুক্ত জাতিসংঘের স্থায়ী প্রতিনিধি গোলাম ইসাকজাইকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইসাকজাই আর আফগানিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করছেন না। তাঁর জায়গায় সুহাইল শাহিনকে স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছে তালেবান। সুহাইল শাহিন তালেবানের অন্যতম মুখপাত্র।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে কে বা কারা যোগ দিতে পারবে, তা নির্ধারণ করে সংস্থার নয় সদস্যের ক্রিডেনশিয়াল কমিটি। এই কমিটির সদস্য রাশিয়া।

নিউইয়র্কে এক সংবাদ সম্মেলনে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী লাভরভ বলেন, ‘বর্তমান পর্যায়ে তালেবানের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির প্রশ্নটি বিবেচনায় নেই।’

গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। এরপর চলতি মাসের শুরুর দিকে দেশটিতে নতুন সরকার গঠন করে তারা।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন