বিজ্ঞাপন

তবে এর বিপরীতে সতর্কবার্তাও দিয়েছেন বেন। তিনি বলেন, যদি তারা (তালেবান) মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধে লিপ্ত হয়, তবে এ সম্পর্ক পর্যালোচনা করবে ব্রিটিশ সরকার।

আফগানিস্তানে ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিল তালেবান সরকার। কিন্তু নাইন–ইলেভেনের পর আফগানিস্তানে হামলা চালায় মার্কিন বাহিনী। এরপর থেকে দেশটিতে মার্কিন সেনা ছাড়াও ন্যাটোর সেনারা অবস্থান নেন। এ বাহিনীগুলোর সঙ্গে ২০ বছর ধরে তালেবানের সংঘাত অব্যাহত রয়েছে। এ ছাড়া তালেবান চাইছে পশ্চিমা–সমর্থিত আফগান সরকারকে উৎখাত করতে। সম্প্রতি মার্কিন বাহিনী ও ন্যাটো বাহিনীর সদস্যরা আফগানিস্তান ছাড়তে শুরু করলে এ সংঘর্ষ আরও বেড়ে যায়। এর কারণে আফগান বাহিনীর সদস্যরা দেশ ছেড়ে পালাতেও বাধ্য হচ্ছেন।

কিন্তু এরপরও তালেবানের সঙ্গে কাজ করতে চাইছে যুক্তরাজ্য। তবে ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন এও স্বীকার করেছেন, তালেবানের সঙ্গে তাঁদের কাজ করাটা হবে সাংঘর্ষিক। তিনি বলেন, তালেবান যেকোনো মূল্যে আন্তর্জাতিক মহলের স্বীকৃতি চাইছে। জাতি গঠনের জন্য তাদের অর্থ এবং সহায়তার পথ খুলতে চাইছে।

বেন ওয়ালেস আরও বলেন, ‘কিন্তু আপনি এই সন্ত্রাসী সংগঠনের সঙ্গে এ কাজ করতে পারেন না। আপনাকে শান্তির সহযোগী হতে হবে, নয়তো একঘরে হয়ে যাওয়া ঝুঁকিতে পড়বেন। আর এই একঘরে পরিস্থিতি তাদের আগের অবস্থানে নিয়ে যাবে।’

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন