থ্রিডি বিলবোর্ডে যেন জীবন্ত বিড়াল

টোকিওর ব্যস্ততম শিনজুকু রেলস্টেশনের কাছে বিড়ালের থ্রিডি বিলবোর্ড। টোকিও।ছবি: ক্রস শিনজুকু ভিশন টুইটার

টোকিওর ব্যস্ততম রেলস্টেশনের কাছে বিশালাকৃতির একটি বিড়ালের থ্রিডি বিলবোর্ড সবাইকে চমকে দিয়েছে। ১৬৬৪ বর্গফুট এলইডি ডিসপ্লের ওই বিলবোর্ডটিতে বিজ্ঞাপনের ফাঁকে ফাঁকে বিড়ালটির উপস্থিতি যেন বাস্তব উপস্থিতি ফুটিয়ে তোলে। ফোর-কে রেজল্যুশনের পর্দায় জাপানের রাজধানীর উঁচুতে থাকা বিড়ালটিকে দেখে মনে হয়, সে ডাকতে পারবে। যুক্তরাষ্ট্রের সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিদিন সকাল সাতটা থেকে রাত একটা পর্যন্ত বিলবোর্ডটি চালু থাকে। দিনভর এখানে নানা ভিডিও দেখানো হয়। বিলবোর্ডে দেখা যায়, বিড়ালটি সকাল সকাল জেগে ওঠে। বিকেলের দিকে এটি দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে পথচারীদের দেখে ডাকাডাকি করে। আর সন্ধ্যাবেলায় এটি শুয়ে পড়ে এবং মাথা নিচু করে ঘুমিয়ে যায়।

ডিসপ্লেটি ১২ জুলাই উদ্বোধন হওয়ার কথা থাকলেও গত মাস থেকেই পরীক্ষামূলক সম্প্রচার শুরু করেছে। অনলাইনে ইতিমধ্যে ‘শিনজুকু’ বিড়ালটি সবার নজর কেড়েছে। কেউ কেউ এটিকে ‘কিউট’ বলে ডাকছেন এবং প্রযুক্তির এ ধরনের উদ্ভাবনে তাঁরা বিস্ময় প্রকাশ করছেন।

একজন টুইটার ব্যবহারকারী তাঁর একাউন্টে বিড়ালটির হাই তোলা এবং ঘুমাতে যাওয়ার একটি ভিডিও পোস্ট করে লিখেছেন, তাঁকে দেখে রাতে ঘুমন্ত মনে হয়েছে। যাঁরা সশরীর এই দৃশ্য দেখতে যেতে পারছেন না, তাঁদের জন্য ইউটিউবে সরাসরি সম্প্রচারের ব্যবস্থা করেছে ডিসপ্লে কোম্পানি ‘ক্রস স্পেস’। তবে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্ক্রিনটির মালিক সতর্ক করে জানিয়েছেন, অবস্থান অনুযায়ী থ্রিডি ইফেক্টটি বদলে যেতে পারে।

শিনজুকু রেলস্টেশন থেকে বের হওয়ার রাস্তার ওপরে বিলবোর্ডের অবস্থান। ওই এলাকা বাণিজ্যিককেন্দ্র এবং ব্যস্ততম শপিং অঞ্চল হিসেবে পরিচিত। ডিসপ্লেটি উদ্বোধন উপলক্ষে চালু করা ‘ক্রস শিনজুকু ভিশন’ ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, প্রতি সপ্তাহে প্রায় দুই লাখ পথচারী ওই এলাকা দিয়ে যাতায়াত করেন।