বিজ্ঞাপন

পুলিশের অভিযোগ, পোয়েটিক জাস্টিস ফাউন্ডেশনের (পিএফজে) প্রতিষ্ঠাতা এম ও ধালিওয়ালের সঙ্গে দিশার ‘জুম’ কলের মাধ্যমে আলোচনা হয়েছে। ধালিওয়াল এসএফজের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। সবাই তা জানে। দিল্লি পুলিশের এই দাবির মুখে বিচারক বলেন, ‘না। আমি ধালিওয়ালকে চিনি না। জানিও না তিনি কে।’

এ সময় দিশার আইনজীবী বলেন, জুম কলে অন্তত ৪০ জন পরিবেশ আন্দোলনকর্মী উপস্থিত ছিলেন। বিচারক ধর্মেন্দ্র রানা পুলিশের কাছে জানতে চান, ২৬ জানুয়ারির হাঙ্গামায় দিশা জড়িত এমন কোনো প্রমাণ তাঁদের কাছে আছে কি না। পুলিশের পক্ষে অতিরিক্ত সলিসিটার জেনারেল এস ভি রাজু বলেন, কোনো চক্রান্তে সবার ভূমিকা এক হয় না। দিশার আইনজীবী এ সময় বলেন, লাল কেল্লার হাঙ্গামার অভিযোগে ১৪৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁদের একজনের সঙ্গেও দিশার কথা হয়েছে এমন তথ্য পুলিশ দাখিল করতে পারেনি।

দুই পক্ষের যুক্তি শোনার পর বিচারক রানা বলেন, নিজে সন্তুষ্ট না হলে রায় দিতে পারবেন না। টুলকিট ব্যবহার কেন আপত্তিকর, ২৬ জানুয়ারির লাল কেল্লায় হামলার সঙ্গে দিশার সম্পর্ক কোথায়, খলিস্তানিদের সঙ্গেও কী করে বা তিনি ষড়যন্ত্রে লিপ্ত, তা নিয়ে বিচারক রানা বারবার প্রশ্ন তুলে বলেন, অনেক যুক্তিই নিছক অনুমান মনে হচ্ছে।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন