নিখোঁজের ১১ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও এয়ার এশিয়ার উড়োজাহাজের খোঁজ পাওয়া যায়নি। উড়োজাহাজটির খোঁজে জাভা সাগরে অনুসন্ধান চালানো হচ্ছে। তবে রাত নেমে আসায় আজকের মতো অনুসন্ধান স্থগিত করা হয়েছে। আবহাওয়া ভালো থাকালে আগামীকাল সোমবার সকাল থেকে পুনরায় অনুসন্ধান শুরু হবে।
এএফপির প্রতিবেদনের এ খবর জানানো হয়েছে।
খবরে বলা হয়, ১৬২ জন আরোহী নিয়ে এয়ার এশিয়ার ফ্লাইট কিউজেড৮৫০১ ইন্দোনেশিয়া থেকে সিঙ্গাপুরে যাচ্ছিল। স্থানীয় সময় সকাল পাঁচটা ২০ মিনিটে সুরাবায়ার জুয়ানডা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ফ্লাইটটি ছেড়ে যায়। সকাল সাড়ে আটটায় বিমানটির সিঙ্গাপুরের চাঙ্গি বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা ছিল। কিন্তু বিমানটি আকাশে ওড়ার এক ঘণ্টার মধ্যে এর সঙ্গে জাকার্তা এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ওই সময় উড়োজাহাজটি জাভা সাগরের ওপর দিয়ে যাচ্ছিল।

উড়োজাহাজটিতে যাত্রী ছিলেন ১৫৫ জন। তাঁদের মধ্যে ১৭ জন শিশু রয়েছে। আর কেবিন ক্রু পাঁচজন এবং পাইলট ও সহকারী পাইলট ছিলেন।
আরোহীদের মধ্যে ১৫৫ জন ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক। এ ছাড়াও দক্ষিণ কোরিয়ার তিনজন এবং সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সের একজন করে নাগরিক রয়েছে। ফ্রান্সের ওই নাগরিক সহাকারী চালক ছিলেন।

এয়ার এশিয়া তাদের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে এক বিবৃতিতে বলেছে, উড়োজাহাজটি যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আগে পাইলট বৈরী আবহাওয়ার কারণে জাকার্তা এয়ার ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণকক্ষের কাছে গতিপথ পরিবর্তনের অনুমতি চান।
রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৩২ হাজার ফুট ওপর দিয়ে উড়োজাহাজটি চলছিল। কিন্তু আকাশে প্রচুর মেঘ থাকায় তা এড়াতে বিমানের চালক ৩৮ হাজার ফুট ওপর দিয়ে চালানোর জন্য নিয়ন্ত্রণকক্ষের অনুমতি চেয়েছিলেন।
এদিকে, ইন্দোনেশিয়া বিমানবাহিনী নিখোঁজ বিমানের সন্ধানে জাভা সাগরে তাদের দুটি উড়োজাহাজ পাঠিয়েছে।
বিমানবাহিনীর মুখপাত্র হাদি চায়য়ান্তো ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগে বলেন, ‘আবহাওয়া মেঘলা এবং ওই এলাকা সাগরঘেরা। আমরা এখনো পথে রয়েছি। তাই উড়োজাহাজটির কী হয়েছে, তা নিয়ে কোনো অনুমান করতে চাইছি না।’
অনুসন্ধানকারী দলের প্রধান এফ এইচ বি সোইলিসতিও এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘আমরা আমাদের সর্বোচ্চ শক্তি ব্যবহার করব। এ ক্ষেত্রে সেনাবাহিনী, পুলিশ থেকে শুরু করে জেলেদের কাছ থেকে সহায়তা নেওয়া হবে।’ তিনি আরও জানান, আগামীকাল মারয়েশিয়া থেকে তিনটি বিমান তাদের সঙ্গে যোগ দেবে। ইন্দোনেশিয়ার কাছ থেকে অনুমতি পাওয়ার পর সিঙ্গাপুর থেকেও সি-১৩০ নামের সামরিক বিমানও অনুসন্ধানকাজে অংশ নিতে প্রস্তুত রয়েছে। অস্ট্রেলিয়া সাহায্য করতে আগ্রহী।
দেশটির যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা হাদি মোস্তফা এএফপিকে বলেন, ‘অন্ধকার হয়ে আসায় আমরা স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে পাঁচটায় আজকের জন্য তল্লাশি অভিযান স্থগিত করেছি। সেখানকার আবহাওয়াও তেমন ভালো না, খুবই মেঘলা। যদি আবহওায়া ভালো থাকে, তাহলে আগামীকাল সকাল সাতটায় বা তার আগে পুনরায় তল্লাশি শুরু হবে।’

বিজ্ঞাপন
এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন