পরাজিত প্রার্থীদের ওপর আস্থা রাখলেন মমতা

বিজ্ঞাপন
default-image

ভারতের আইনসভার উচ্চকক্ষ রাজ্যসভার আসন্ন উপনির্বাচনে গতবারের পরাজিত প্রার্থীদের মনোনয়ন দিয়েছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। পাঁচটি শূন্য আসনে দলের পক্ষ থেকে তিন প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

মনোনয়ন পাওয়া তিন প্রার্থী হলেন মৌসুম বেনজির নুর, অর্পিতা ঘোষ ও দীনেশ ত্রিবেদী। তাঁরা গত লোকসভা নির্বাচনে পরাজিত হয়েছিলেন।

রাজ্যসভার সদস্যরা একজন সাংসদ পদমর্যাদার। তাঁরাও এমপি বা সাংসদ হিসেবে পরিচিত। তাঁদের মেয়াদ থাকে ছয় বছর। লোকসভার সাংসদদের মেয়াদ পাঁচ বছর। রাজ্যসভায় রয়েছে ২৫০টি আসন। লোকসভায় ৫৪৩টি আসন। আগামী ২ এপ্রিল রাজ্যসভার পশ্চিমবঙ্গের পাঁচ সাংসদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তাঁরা হলেন অরাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব প্রখ্যাত চিত্রকর যোগেন চৌধুরী, শিল্পপতি কেডি সিং, সাংবাদিক আহমেদ হাসান ইমরান, সাবেক মুখ্যসচিব মণীশ গুপ্ত এবং সিপিএমের বহিষ্কৃত সাংসদ ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায়। এই পাঁচ শূন্য আসনসহ রাজ্যসভার ৫৫টি আসনে ১৩ মার্চ নির্বাচন হবে। নির্বাচনে ভোট দেবেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভার ২৯৪ জন বিধায়ক।

পাঁচ শূন্য আসনের আরেকটিতে তৃণমূল কংগ্রেস দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সুব্রত বক্সীকে মনোনয়ন দিয়েছে। অরাজনৈতিক ব্যক্তিদের বাদ দিয়ে ওই চার আসনের প্রার্থীদের ওপর তৃণমূল নেত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আস্থা রেখেছেন বলে জানানো হয়েছে দলের পক্ষ থেকে। বাকি অপর আসনে তৃণমূল প্রার্থী দেয়নি। ওই আসনে কংগ্রেস বামজোট প্রার্থী করেছে কলকাতা পৌর করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও প্রখ্যাত আইনজীবী বিকাশ ভট্টাচার্যকে। গতকাল সোমবার বিকাশ ভট্টাচার্যকে জোটের প্রার্থী হিসেবে অনুমোদন দিয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন