default-image

পাঠকের মন্তব্যে আদালত অবমাননার দায়ে মালয়েশিয়ার নিউজ পোর্টাল মালয়েশিয়াকিনির বিরুদ্ধে রায় দিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। আজ শুক্রবার আদালত নিউজ পোর্টালটিকে ৫ লাখ মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত জরিমানা করেছেন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, আদালতের জন্য আক্রমণাত্মক বলে বিবেচিত পাঠকদের এমন কিছু মন্তব্য প্রকাশ করার জের ধরে মালয়েশিয়াকিনির বিরুদ্ধে গত বছর একটি মামলা করা হয়েছিল। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটির গণমাধ্যমের স্বাধীনতার ক্ষেত্রে এ মামলাকে এক পরীক্ষা হিসেবে ব্যাপকভাবে দেখা হয়ে থাকে।

দেশের সর্বোচ্চ আদালতে রায় হওয়ায় এর বিরুদ্ধে মালয়েশিয়াকিনি আপিল করতে পারবে না। তবে ইতিমধ্যে নিউজ পোর্টালটি ও এর প্রধান সম্পাদক তাঁদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। বিবাদীপক্ষের দাবি, পুলিশ তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করার পরপরই তারা ওই সব মন্তব্য সরিয়ে ফেলেছে।

মালয়েশিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল গত বছর আদালতে দাখিল করা একটি আবেদনে অভিযোগ করেন, মালয়েশিয়াকিনি তার ওয়েবসাইটে পাঠকদের করা পাঁচটি মন্তব্য প্রকাশ করেছে, যেগুলো বিচার বিভাগের প্রতি মানুষের আস্থা ক্ষুণ্ন করেছে। এসব মন্তব্য প্রকাশ করে আদালত অবমাননা করেছে এই নিউজ পোর্টাল ও এর প্রধান সম্পাদক স্টিভেন গান।

বিজ্ঞাপন

ওই মামলার ওপর শুনানিতে মালয়েশিয়ার ফেডারেল কোর্টের কয়েকজন বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ আজ এক রুলে বলেছেন, নিজেদের ওয়েবসাইটে যা-ই প্রকাশ করা হয়েছে, তার জন্য মালয়েশিয়িকিনির পুরো দায় রয়েছে। তবে এই দায় থেকে স্টিভেন গানকে বাদ দিয়েছেন আদালত।

দেশের সর্বোচ্চ আদালতে রায় হওয়ায় এর বিরুদ্ধে মালয়েশিয়াকিনি আপিল করতে পারবে না। তবে ইতিমধ্যে নিউজ পোর্টালটি ও এর প্রধান সম্পাদক তাঁদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। বিবাদীপক্ষের দাবি, পুলিশ তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করার পরপরই তারা ওই সব মন্তব্য সরিয়ে ফেলেছে।

আদালতের রুলের বিষয়ে মালয়েশিয়াকিনি ও এর প্রধান সম্পাদকের আইনজীবী দলের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য জানা যায়নি।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম সূচকে মালয়েশিয়া ধাপে ধাপে উন্নতি করেছে। তবে বিভিন্ন মানবাধিকার গোষ্ঠীর অভিযোগ, গত বছরের মার্চে সরকারের পরিবর্তন ঘটার পর থেকে দেশটিতে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় আবার চাপ বাড়ছে। তবে অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে সরকার।

বিজ্ঞাপন
এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন