বিজ্ঞাপন

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়, আজ বৃহস্পতিবার তালেবানের অস্ত্রবিরতির প্রস্তাবের কথা জানিয়েছেন নাদের নাদেরি নামের আফগান সরকারের পক্ষের একজন মধ্যস্থতাকারী। তালেবানের সাত হাজার সদস্য বিভিন্ন স্থানে বন্দী আছে। বন্দীদের মুক্তির পাশাপাশি জাতিসংঘের কালো তালিকা থেকে শীর্ষ নেতাদের নাম সরিয়ে দেওয়ার শর্তও দিয়েছে তালেবান।

তালেবানের অস্ত্রবিরতির প্রস্তাব এমন সময়ে এল, যখন আজ বৃহস্পতিবারই পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশের সীমান্ত দিয়ে আফগানিস্তানে প্রবেশের চেষ্টা করা শতাধিক মানুষের সঙ্গে পাকিস্তান সীমান্তরক্ষীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এর আগের দিন বুধবারেই ওই অঞ্চলের পাকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্তের স্পিন বোল্ডাক ক্রসিং দখলের দাবি করে তালেবান। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে আফগান সেনাদের হটিয়ে তালেবান যেসব সীমান্ত ক্রসিং দখল করেছে, স্পিন বোল্ডাক সেগুলোর মধ্যে সর্বশেষ। কান্দাহার প্রদেশে কয়েক দিন ধরে আফগান সেনাদের সঙ্গে তীব্র লড়াই চলার পর সীমান্তবর্তী ক্রসিংটি দখলের দাবি করে তারা।

স্পিন বোল্ডাক সীমান্ত ক্রসিংটি ব্যবহার করে সরাসরি পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে প্রবেশ করা যায়। বেলুচিস্তানে কয়েক দশক ধরে তালেবানের অনেক শীর্ষ নেতা ঘাঁটি গেড়েছেন। সেখানে বসবাস করছেন সশস্ত্র এই গোষ্ঠীর বহু যোদ্ধাও। আফগানিস্তানে তালেবানদের সহায়তা করতে নানা সময়ে দেশটিতে আসা-যাওয়া করে তারা।

এদিকে মার্কিন ও ন্যাটো বাহিনীর সদস্যরা আফগানিস্তান ছাড়তে শুরু করার পর থেকে আফগানিস্তানে সংঘাত বেড়েছে। তালেবান চাইছে পশ্চিমা-সমর্থিত আফগান সরকারকে উৎখাত করতে। এর জেরে আফগান সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষের জেরে হতাহত হয়েছে বহু। আফগানিস্তানের বেশির ভাগ অঞ্চল দখলেরও দাবি করেছে তালেবান। এ কারণে আফগান বাহিনীর সদস্যরা দেশ ছেড়ে পালাতেও বাধ্য হচ্ছেন।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন