বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আগুন লাগার ঘটনায় চারজন দগ্ধ হয়েছেন। অর্ধেকের বেশি আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে পোষা বিড়ালের মালিক ঘরে না থাকার সময়।

সিউলের অগ্নিনির্বাপণ বিভাগের একজন কর্মকর্তা চাং গিও চিউ বলেন, ‘সম্প্রতি বিড়ালসংক্রান্ত আগুন লাগার ঘটনা ঘটেই চলেছে। যেসব বাড়িতে পোষা প্রাণী রয়েছে, সেসব বাড়ির মানুষকে নিজেদের পোষা প্রাণী নিয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছি। যখন বাড়িতে কেউ থাকবে না, তখন এভাবে আগুন ছড়িয়ে পড়তে পারে।’

নগর অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থাপনা বিভাগ জানিয়েছে, সিউলে পোষা প্রাণীসংক্রান্ত আগুন লাগার ঘটনা বেড়েছে। এ সমস্যা শুধু দক্ষিণ কোরিয়ায় সীমাবদ্ধ নেই।

আমেরিকান হিউম্যান অ্যাসোসিয়েশনের হিসাব অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিবছর প্রায় এক হাজার বাড়িতে আগুন লাগার জন্য কোনো না কোনো পোষা প্রাণী দায়ী।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন