default-image

ক্ষমতা দখলের পর মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর প্রধান প্রথমবারের মতো বিদেশ সফরে যাচ্ছেন। সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইংয়ের আজ শনিবার ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর জোট আসিয়ানের আঞ্চলিক সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে। খবর বিবিসির।

চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের শক্তিশালী সেনাবাহিনীর দেশটির ক্ষমতা দখল করে। ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ আনে সেনাবাহিনী। গ্রেপ্তার করা হয় দেশটির গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চিসহ তাঁর দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) একাধিক নেতাকে।  

তাদের ক্ষমতা দখলের পরপরই ব্যাপক প্রতিবাদ শুরু হয়। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এ দেশে বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভ দমাতে নিপীড়নের পথ বেছে নেয় সেনা সরকার। ফেব্রুয়ারি থেকে চলে আসা টানা বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনীর হামলায় ৭০০–এর বেশি মানুষ নিহত হয়।

বিজ্ঞাপন

জাকার্তার এই সম্মেলনে মিয়ানমারের চলমান সংকট নিয়ে আলোচনা হবে। সেনাবাহিনীর ক্ষমতা দখলের পর কোনো আন্তর্জাতিক পরিসরে মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে এটিই প্রথম আলোচনার উদ্যোগ।

সম্মেলনের সূচি অনুযায়ী, সেনাপ্রধান হ্লাইংয়ের সেখানে উপস্থিত থাকার কথা। তবে তাঁর উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়নি। আর জেনারেল হ্লাইংয়ের এ সফর ঘিরে জাকার্তায় বড় প্রতিবাদ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। এর আগে ১০ সদস্যের আসিয়ান জোটের অন্যতম দুই শরিক দেশ থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ও ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, তাঁরা এ সম্মেলনে তাঁদের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের পাঠাবেন।

সেনাবাহিনীর ক্ষমতা দখলের পর আসিয়ান জোট থেকে মিয়ানমারকে বের করে দেওয়ার দাবি ওঠে। তবে এ জোট ঐতিহাসিকভাবেই কোনো দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মাথা ঘামায় না।

এর আগে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস মিয়ানমারের সংকট নিরসনে আসিয়ান নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন