default-image

বিশ্বের দ্বিতীয় দেশ হিসেবে ফাইজার ও বায়োএনটেকের টিকার জরুরি অনুমোদন দিল মধ্যপ্রাচ্যের বাহরাইন। গতকাল শুক্রবার দেশটির পক্ষ থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। এর আগে যুক্তরাজ্য এ টিকাটির অনুমোদন দিয়েছিল।

বাহরাইনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম বাহরাইন নিউজ এজেন্সি গতকাল রাতে দেশটিতে ফাইজারের টিকার জরুরি অনুমোদনের বিষয়টি ঘোষণা করে। সংস্থাটি জানায়, বাহরাইনের ন্যাশনাল হেলথ রেগুলেটরি অথোরিটি সমস্ত উপলব্ধ তথ্যের পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণ এবং পর্যালোচনা অনুসরণ করে টিকাটির অনুমোদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

বাহরাইন অবশ্য কী পরিমাণ টিকা কিনছে, সে তথ্য প্রকাশ করেনি। দেশটি কবে থেকে টিকাদান কর্মসূচি চালু করবে তাও জানানো হয়নি।

বিজ্ঞাপন

গত বুধবার বিশ্বে প্রথম দেশ হিসেবে ফাইজার ও বায়োএনটেকের করোনার টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দেয় যুক্তরাজ্য।

যুক্তরাজ্যের সংশ্লিষ্ট নিয়ন্ত্রক সংস্থা এমএইচআরএ বলেছে, ফাইজার ও বায়োএনটেকের করোনার টিকা নিরাপদ। যুক্তরাজ্যে এই টিকার প্রয়োগ আগামী সপ্তাহে শুরু হবে।

ফাইজার ও বায়োএনটেকের দাবি, তাদের উদ্ভাবিত করোনার টিকা ৯৫ শতাংশ কার্যকর।

ফাইজারের টিকা তৈরিতে এমআরএনএর মতো যে নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে, তা ভাইরাসের বিরুদ্ধে মানুষের প্রতিরোধী শক্তিকে সক্রিয় করে। তবে টিকাটি সংরক্ষণে মাইনাস ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস (মাইনাস ৯৪ ডিগ্রি ফারেনহাইট) তাপমাত্রার প্রয়োজন পড়ে।

ফাইজারের করোনার টিকা বেসরকারিভাবে বাংলাদেশেও আমদানির উদ্যোগ শুরু হয়েছে।

ফাইজারের পণ্য আমদানি ও বিতরণকারী প্রতিষ্ঠান এ উদ্যোগ নিয়েছে। সরকারি কর্মকর্তারা বলেছেন, সব শর্ত মেনে টিকা আনলে সরকার অনুমতি দিতে পারে।

মন্তব্য করুন