default-image

যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত কিউ জাওয়ার মিনকে দূতাবাস থেকে বের করে দিয়েছেন তাঁর অধস্তন সামরিক অ্যাটাশে। রাষ্ট্রদূত কিউ এখন আর লন্ডনে মিয়ানমারের প্রতিনিধিত্বও করছেন না বলেও জানিয়ে দেন ওই অ্যাটাশে। কিউ জাওয়ার মিন বলেন, সামরিক অ্যাটাশে অন্য কূটনীতিক ও কর্মীদেরও বেরিয়ে যেতে বলেছেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি অনলাইন এ খবর দিয়েছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী। তার আগে তারা মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চিকে আটক করে। এরপর দুই মাস ধরে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে দেশটিতে ব্যাপক সহিংসতা ছড়িয়ে পড়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে এখন পর্যন্ত প্রায় ৬০০ লোক নিহত হয়েছেন।

জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে সংহতি প্রকাশ করেন যুক্তরাজ্যে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত কিউ জাওয়ার মিন। ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী সু চিকে মুক্তিরও দাবি জানান তিনি।  

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়, গতকাল বুধবার লন্ডনের মেফেয়ার এলাকায় দূতাবাসের সামনে মিয়ানমারের জান্তাবিরোধী বিক্ষোভকারীরা জড়ো হন। সেখানে যোগ দেন রাষ্ট্রদূত কিউ জাওয়ার মিনও। পরে জানা যায়, দূতাবাসে ঢুকতে গেলে কিউকে আটকে দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ভেতরে কারা, এর জবাবে কিউ বলেন, ‘সামরিক অ্যাটাশে, তারা আমার দূতাবাস দখলে নিয়ে নিয়েছে।’

এএফপিকে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত বলেন, সারা রাত তিনি দূতাবাসের বাইরে ছিলেন।
ডেইলি টেলিগ্রাফকে কিউ জাওয়ার মিন বলেন, ‘যখন আমি দূতাবাস থেকে বের হই, তারা ভেতরে ঢুকে পড়ে এবং তারা দূতাবাস দখলে নিয়ে নেয়।’

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘তারা নেপিডো থেকে নির্দেশনা পেয়েছে। যার কারণে তারা আমাকে ভেতরে যেতে দিচ্ছে না।’ এ বিষয়ে তিনি ব্রিটিশ সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন