লেবাননে বিক্ষোভের মুখে প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ

বিজ্ঞাপন
default-image

ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ করেছেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব। টেলিভিশনে আজ সোমবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি। তাঁর মন্ত্রিসভার সব সদস্যও পদত্যাগ করেছেন। এর মধ্য দিয়ে দেশটির সরকার ভেঙে গেল।

গত মঙ্গলবার বৈরুত বন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণের পর বিক্ষোভ প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ শুরু হয়। কাতারভিত্তিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদনে এ কথা জানানো হয়।

প্রধানমন্ত্রী তাঁর পদত্যাগের ঘোষণা দেওয়ার আগে আজ পদত্যাগ করেন দেশটির বিচারমন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী ও পরিবেশমন্ত্রী। কিন্তু বিক্ষোভকারীরা প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে অনড় ছিলেন। পরে স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব বলেন, ‘দুর্নীতির মহামারির কারণেই বৈরুত বন্দরে ভয়াবহ ওই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। দেশের চেয়ে করাপশন সিস্টেম বড় হয়ে উঠেছে।’ তিনি বিস্ফোরণের জন্য দায়ীদের শাস্তি নিশ্চিত করার আহ্বান জানান।

default-image

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের ঘোষণার আগে বিচার মন্ত্রী মেরি ক্লড নাজম নিজের পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ সময় তিনি বলেন, তাঁরা এমন সময় পদত্যাগ করলেন যখন বিপর্যয়কর এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে দেশটি ৩০০ মিলিয়ন ডলার আন্তর্জাতিক সাহায্য পেতে যাচ্ছে।

৪ আগস্টে বৈরুত বন্দরের বিস্ফোরণে দুই শতাধিক মানুষ নিহত হয়। আহত হয় ৬ হাজারেরও বেশি মানুষ। ওই ঘটনায় লেবাননে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশ বিক্ষোভকারীদের নিয়ন্ত্রণে টিয়ারগ্যাস ব্যবহার ও লাঠিপেটা করে। বিক্ষোভকারীরা গতকাল রোববার দেশটির পার্লামেন্ট ভবনের সামনে অবরোধ সৃষ্টি করলে পুলিশ তাদের ওপর চড়াও হয়। এর আগে শনিবার বিক্ষোভকারীরা দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে হামলা চালায়

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন