default-image

লেবাননের একটি হ্রদে প্রায় ৪০ টন মৃত মাছ ভেসে উঠেছে। পানিদূষণের কারণেই ওই বিপর্যয় সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।  দুর্গন্ধে হ্রদের পাড়ের গ্রামে টেকা দায় হয়ে গেছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

হ্রদ থেকে মরা ও পচে যাওয়া মাছ সংগ্রহ করতে দেখা গেছে স্বেচ্ছাসেবীদের। পরিবেশকর্মীরা দীর্ঘদিন ধরেই লিতানি নদীতে পয়োনিষ্কাশন ও বর্জ্য দূষণ বিষয়ে সতর্ক করে আসছিলেন।

স্থানীয় পরিবেশকর্মী আহমদ আসকার বলেন, হ্রদে কয়েক দিন ধরে মাছ মরে ভেসে উঠেছে। অস্বাভাবিক সংখ্যায় মরেছে মাছ।

আসকার ও স্থানীয় জেলেরা বলছেন, গত কয়েক দিনে ওই হ্রদে কমপক্ষে ৪০ টন মাছ মরে গেছে। তারা লিতানি নদী কর্তৃপক্ষকে ঘটনাটি খতিয়ে দেখতে আহ্বান জানিয়েছে। এ ছাড়া যাঁরা নদীতে বর্জ্য ফেলছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলেছে।

বিজ্ঞাপন

নদী কর্তৃপক্ষ বলছে, মাছগুলো বিষাক্ত ও তাতে একধরনের ভাইরাস আছে। তাই লিতানি নদীতে কেউ যেন মাছ না ধরে, তা জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি হতে পারে।
দূষণের কারণে ২০১৮ সাল থেকে হ্রদটিতে মাছ ধরার নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। হ্রদটি ১৯৫৯ সালে বিদ্যুৎ ও সেচ প্রকল্পের জন্য তৈরি করা হয়।

গত সপ্তাহে স্বেচ্ছাসেবীরা হ্রদের তীরে আঠালো আলকাতরা দূর করেন। পরিবেশবিদরা সেখানকার পরিবেশ নিয়ে আগেই সতর্ক করেছিলেন।

গত বছরের আগস্টে বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের পর দেশটি অর্থনৈতিক সমস্যায় পড়েছে। এখন তাদের পরিবেশগত বিপর্যয়ের মোকাবিলাও করতে হবে।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন