default-image

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের লড়াইয়ে মুখোমুখি ‘প্যাডম্যান’ ও ‘টার্মিনেটর’। নির্বাচনে অন্যতম প্রার্থী শ্রীলঙ্কার সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপক্ষের ভাই গোতাভায়া রাজাপক্ষে পরিচিত ‘টার্মিনেটর’ বলে। অপর প্রার্থী সাজিথ প্রেমাদাসা পরিচিত ‘প্যাড ম্যান’ হিসেবে।

৭০ বছরের গোতাভায়া রাজাপক্ষে সেনাবাহিনীর সাবেক প্রধান। তামিল গেরিলাদের পরাস্ত করেন তিনি। ৩৭ বছর ধরে চলা বিচ্ছিন্নতাবাদী যুদ্ধের অবসান ঘটান। রাজাপক্ষে পরিবার তাঁকে ‘টার্মিনেটর’ উপাধি দেন। এ বছর ইস্টার সানডেতে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২৬৯ জন নিহত হওয়ার পর গোতাভায়া রাজাপক্ষে দুর্নীতি ও উগ্রবাদীদের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেন।

এএফপির খবরে জানা যায়, রাজাপক্ষের প্রধান চ্যালেঞ্জ সাজিথ প্রেমাদাসা। তিনি রাজনীতিবিদ। মাসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি দিয়ে সাজিথ প্রেমাদাসা নারী ভোটারদের আকৃষ্ট করতে চান। নারীদের বিনা মূল্যে স্যানিটারি প্যাডও দিয়েছেন তিনি।

শ্রীলঙ্কার রক্ষণশীল বৌদ্ধ সমাজে মাসিক এখনো ট্যাবু। মাসিক নিয়ে খোলামেলা আলোচনার পক্ষে প্রচার চালানোয় রাজাপক্ষে প্রেমাদাসাকে ‘প্যাড ম্যান’ বলে বিদ্রূপ করেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রেমাদাসা টুইট করেন, ‘আমি নারী অধিকার রক্ষায় সোচ্চার। আমি প্যাড ম্যান নামকরণে গর্বিত।’

প্রেমাদাসা অভিযোগ করেন, গোতাভায়া ২০১৫ সালে তাঁর ভাই মাহিন্দা রাজাপক্ষের শাসনকালে ডেথ স্কোয়াডের নেতৃত্ব দেন। সে সময় বিরোধীদের অপহরণ করা হতো। পরে আর তাঁদের খুঁজে পাওয়া যেত না। গোতাভায়া বড় ভাই মাহিন্দার ব্যক্তিত্বকে ব্যবহার করে নির্বাচনী প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন।

গোতাভায়ার বড় ভাই ও সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপক্ষের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ রয়েছে। ২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে তৃতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হওয়ার চেষ্টা করেন মাহিন্দা। তবে তিনি ব্যর্থ হন।

নতুন সাংবিধানিক সংশোধনী অনুসারে মাহিন্দা রাজাপক্ষে আর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন না। পারিবারিক ঐতিহ্য বজায় রাখতে তাই মাহিন্দার ভাই গোতাভায়া রাজাপক্ষের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

তবে জনসম্মুখে সংবাদ সম্মেলনে ভাইয়ের ভাবমূর্তি খুব বেশি রক্ষা করতে পারেননি গোতাভায়া। তিন মাস ধরে চলা নির্বাচনী প্রচারে মাহিন্দাকেন্দ্রিক প্রশ্নগুলোতে তাঁর দেওয়া উত্তরগুলো বিরোধীদের কাছে সমালোচিত হয়েছে।

তামিলদের বিরুদ্ধে অভিযানে ৪০ হাজার তামিল নাগরিককে হত্যার অভিযোগ নিয়ে গোতাভায়াকে প্রশ্ন করা হয়। উত্তরে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, আপনারা কেন অতীত নিয়ে কথা বলছেন? ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন করুন। গোতাভায়া বলেন, ‘আমি শ্রীলঙ্কার ভবিষ্যৎ প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছি। তাই ভবিষ্যতের দিকে মনোযোগ দেওয়াই ভালো হবে।’

গোতাভায়া রাজাপক্ষের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র-শ্রীলঙ্কার দ্বৈত নাগরিকত্ব, ইউক্রেন থেকে উড়োজাহাজ কেনাসংক্রান্ত দুর্নীতি, মা-বাবার স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের জন্য রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে চুরি প্রভৃতি অভিযোগ রয়েছে।

আরেক প্রার্থী প্রেমাদাসার পরিবারের রাজনৈতিক পটভূমি। ১৯৯৩ সালে শ্রীলঙ্কার রাজধানীতে তাঁর বাবা মে ডের র‌্যালিতে আততায়ীর হাতে নিহত হন। প্রেমাদাসাকে হত্যার জন্য তামিল গেরিলাদের দায়ী করা হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0