default-image

সাগরের বুকে আগুন লেগে ডুবতে বসেছে জাহাজ। জাহাজে থাকা লোকজনকে উদ্ধার করে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে নিরাপদে। পরে নৌবাহিনীর উদ্ধারকর্মীদের নজরে পড়ে যে জাহাজটিতে রয়ে গেছে আরও চারটি প্রাণী। সাগরে ঝাঁপ দিয়ে এদের পিঠে করে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন নৌবাহিনীর এক নাবিক।

বিবিসি জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার থাইল্যান্ডের কোহ আদাং দ্বীপ থেকে সাগরের ১৩ কিলোমিটার গভীরে ঘটেছে এ ঘটনা। জাহাজটি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে চারটি বিড়াল। জাহাজে আগুন লাগলেও বিড়ালগুলো ছিল অক্ষত ও সুস্থ। উদ্ধারকর্মীদের কাছেই আদরযত্নে আছে এরা এখন।

থাইল্যান্ডের সংবাদপত্র দ্য নেশন জানায়, ফামোনসিন নাভা ১০ নামের জাহাজটি মঙ্গলবার সাগরে মাছ ধরছিল। কিন্তু কোনো কারণে একপর্যায়ে জাহাজটিতে আগুন ধরে যায়। এতে সাগরে ডুবতে শুরু করে মাছ ধরার জাহাজটি। জাহাজের আটজন ক্রুই প্রাণ বাঁচাতে সাগরে ঝাঁপ দেন। তখন পাশ দিয়ে যাওয়া আরেকটি মাছ ধরার জাহাজ তাঁদের উদ্ধার করে।

বিজ্ঞাপন
default-image

এরপর ডুবন্ত জাহাজটি থেকে তেল ছড়িয়ে পড়ছে কি না, তা দেখতে ডাকা হয় নৌবাহিনীকে। তারা এসে দেখল, কয়েকটি বিড়াল জাহাজের এক পাশে একটি কাঠের ওপর গাদাগাদি করে দাঁড়িয়ে আছে।

থাই নৌবাহিনীর আকাশ এবং উপকূলীয় প্রতিরক্ষা বিভাগের ফার্স্ট ক্লাস পেটি অফিসার উইচিট পুকডিলন বলেন, ‘আমার ক্যামেরা জুম করে জাহাজটি দেখছিলাম। আমি দেখলাম, একটি বা দুটি বিড়াল মাথা বের করে রেখেছে।’

default-image

এরপর শুরু হয় বিড়ালগুলো উদ্ধারের তৎপরতা। নৌবাহিনীর এক নাবিক সাগরে ঝাঁপ দিয়ে সাঁতরে চলে যান ডুবন্ত জাহাজটির কাছে। সেখান থেকে একে একে চারটি বিড়াল উদ্ধার করে নিজের পিঠে নিয়ে ফিরে আসেন ওই নাবিক।

বিড়ালগুলোর উদ্ধার নিয়ে গতকাল বুধবার ফেসবুকে করা একটি পোস্ট ভাইরাল হয়েছে। পোস্টটিতে আড়াই হাজারের বেশি মন্তব্য পড়ে। এ ঘটনায় নৌবাহিনীর উদ্ধারকর্মীদের প্রশংসা করে মানুষ।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন