default-image

শ্রীলঙ্কায় করোনাভাইরাসের কারণে অন্য অনেক কিছুর মতো মাছ বিক্রিতেও ধস নেমেছে। তাই মাছ বিক্রি বাড়াতে উৎসাহ দিতে দেশটির সাবেক এক মন্ত্রী খেলেন কাঁচা মাছ, তা–ও আবার সংবাদ সম্মেলনে। শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় এ ঘটনা ঘটেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, গত মঙ্গলবার কলম্বোয় এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল। তাতে অংশ নিয়েছিলেন দিলীপ বেদারাচ্চি। তিনি দেশটির মৎস্যসম্পদমন্ত্রী ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনেই বক্তব্যের একপর্যায়ে হাতে তুলেন নেন মাঝারি আকারের একটি কাঁচা মাছ। মাছে যে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব থাকে না, তা বোঝাতে দিলীপ মাছটিতে কামড় বসান এবং চিবোতে থাকেন।

সংবাদ সম্মেলনে হাতে থাকা কাঁচা মাছ দেখিয়ে সাংবাদিকদের দিলীপ বলেন, ‘আমি এই মাছ এনেছি আপনাদের দেখানোর জন্য। পুরো দেশের মানুষের কাছে আমি আরজি জানাচ্ছি এই মাছ খাওয়ার জন্য। ভয় পাবেন না। আপনি নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবেন না।’

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসের প্রকোপ দেখা দেওয়ার পর থেকে শ্রীলঙ্কায় সংশ্লিষ্ট বিধিনিষেধ জারি করা হয়। এতে বড় বাজারে নিয়ে মাছ কেনাবেচায় ধস নামে। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের দাবি, এ কারণে এই খাতের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিরা আর্থিক সংকটে পড়েছেন।

দিলীপ বেদারাচ্চি বলেন, ‘মাছ ধরা ও কেনাকাটার সঙ্গে জড়িত লোকজন মাছ বিক্রি করতে পারছেন না। এই দেশের মানুষ মাছ খাচ্ছেন না।’

শ্রীলঙ্কার মানুষের খাদ্যতালিকার একটি অন্যতম অংশ মাছ। তবে দেশটির কেন্দ্রীয় মাছের বাজারে কোভিড-১৯ রোগ ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ার ঘটনা ঘটেছিল। এরপর তা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়ে। মূলত সে কারণেই দেশটিতে মাছের কেনাবেচা কমে যায় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। মাছ খাওয়া ও কেনাবেচা কমে যাওয়ায় দেশটিতে ইদানীং মাছের দামও কমে গেছে বেশ।

মন্তব্য পড়ুন 0