বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত ও বন্দী হন সু চি। এরপর তাঁর বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে অবৈধভাবে ওয়াকিটকি আমদানি ও নিজের কাছে রাখা এবং করোনাভাইরাস-সংক্রান্ত বিধিনিষেধ লঙ্ঘনের জন্য দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় ছয় বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন তিনি।

সু চির সমর্থক ও মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো বলছে, সামরিক বাহিনী কর্তৃক ক্ষমতা দখলের বৈধতা দেওয়া ও সু চিকে রাজনীতিতে ফিরে আসা থেকে বিরত রাখার জন্য তাঁর বিরুদ্ধে এসব মামলা দেওয়া হয়েছে; যদিও মিয়ানমারের সামরিক জান্তা সরকার তাদের বিরুদ্ধে ওঠা এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র মেজর জেনারেল জাও মিন তুনের কাছে এ নিয়ে জানতে চাওয়া হয়। তিনি বলেন, ‘কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়। আমি শুধু এতটুকু বলতে চাই, আইন অনুযায়ী তাঁর (সু চি) বিচার করা হবে।’

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন