default-image

হংকংয়ে চলমান বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে আরও একজন নিহত হয়েছেন। আজ সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি লাইভ ফুটেজে দেখা যায়, একজন পুলিশ কর্মকর্তা বন্দুক নিয়ে সড়ক অবরোধ করা এক ব্যক্তির সঙ্গে ধ্বস্তাধ্বস্তি করছেন।

এ সময় মুখ ঢেকে রাখা আরেকজন মানুষ এগিয়ে এলে পুলিশ কর্মকর্তা তাঁকে গুলি করেন, আঘাত করেন। এরপরও ধ্বস্তাধ্বস্তি চলছিল এবং ওই পুলিশ কর্মকর্তা এর মধ্যে আরও দুটি গুলি করেন। ওই গুলি কোথায় গিয়ে লেগেছে, তা ওই ফুটেজ দেখে পরিষ্কার বোঝা যায়নি।

গুলি খাওয়া ব্যক্তির কী হয়েছিল, তা জানা যায়নি। ফুটেজে দেখা যায়, গুলি খেয়ে লোকটি মাটিতে পড়ে যান। তাঁর চোখ খোলা ছিল। তাঁর চারপাশে রক্ত।

গত জুনে হংকংয়ে বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো পুলিশ কাউকে সরাসরি গুলি করল । এর আগে গত ১ অক্টোবর এক তরুণ বিক্ষোভকারীর দিকে তাক করে গুলি চালায় পুলিশ। চীনে কমিউনিস্ট শাসনের ৭০ বছর পূর্তির দিন ওই ঘটনা ঘটে। পরে ৪ অক্টোবর এক পুলিশ কর্মকর্তার গুলিতে ১৪ বছর বয়সী কিশোর আহত হয়। এরপর এই ঘটনা ঘটল। এ ছাড়া ৩ অক্টোবর হংকংয়ে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের ছোড়া রাবার বুলেটের আঘাতে ইন্দোনেশিয়ার এক সাংবাদিকের ডান চোখ অন্ধ হয়ে গেছে।

চীনের প্রস্তাবিত নতুন প্রত্যর্পণ আইন নিয়ে প্রায় চার মাস আগে হংকংয়ে বিক্ষোভ শুরু হয়। প্রস্তাবিত ওই প্রত্যর্পণ আইন পাস হলে চীন, তাইওয়ান ও ম্যাকাওয়ে কোনো মামলায় অভিযুক্ত কাউকে প্রত্যর্পণের আহ্বান জানালে সেটা মানতে হবে হংকং কর্তৃপক্ষকে। হংকংয়ের জনগণের মতে, এ আইনের মাধ্যমে হংকংয়ের বিচারব্যবস্থাই হুমকির মুখে পড়বে ও তাঁদের ওপর চীনের প্রভাব বাড়বে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন