বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তবে জাতিসংঘের এমন প্রস্তাব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেক বিশেষজ্ঞ। তাঁরা বলছেন, এই অর্থ দেওয়া হলে খোদ জাতিসংঘ বা যুক্তরাষ্ট্রের যে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে, তা লঙ্ঘন হবে কি না, এই প্রশ্ন উঠছে। এ ছাড়া আফগানিস্তানের অন্য খাতের জন্য যে অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে, সে অর্থই তালেবান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে দেওয়া হবে কি না, সে নিয়েও প্রশ্ন উঠছে।

যুক্তরাষ্ট্র শুধু সিরাজউদ্দিন হাক্কানির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে—এমনটা নয়। তাঁর নেতৃত্বাধীন সংগঠন হাক্কানি নেটওয়ার্কও যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসী তালিকায়। মার্কিন সরকারের নথি অনুসারে, এই সংগঠনটি ২০ বছর ধরে সেখানে হামলা চালিয়ে আসছে। সন্ত্রাসী সংগঠন আল-কায়েদার সঙ্গে হাক্কানি নেটওয়ার্কের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। আর সিরাজউদ্দিন হাক্কানিকে ধরতে তথ্য দিতে পারলে এক কোটি ডলার পুরস্কারের ঘোষণাও দেওয়া হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে।

জাতিসংঘ তালেবানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে যে অর্থ দিতে চায়, সে–সংক্রান্ত কিছু নথি এসেছে রয়টার্সের হাতে। এরপর বিষয়টি জানতে চাওয়া হয়েছিল জাতিসংঘের উপমুখপাত্র ফারহান হকের কাছে। এই অর্থ দেওয়া হলে মার্কিন সরকারের নিষেধাজ্ঞার লঙ্ঘন হবে কি না, তা নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি ফারহান হক।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন