default-image

উত্তর কোরিয়া সাবমেরিন থেকে একটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে থাকতে পারে। দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তাদের দাবির বরাতে আজ বুধবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পারমাণবিক আলোচনা পুনরায় শুরুর ব্যাপারে পিয়ংইয়ংয়ের কাছ থেকে ঘোষণা আসার কয়েক ঘণ্টার মাথায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি দক্ষিণ কোরিয়ার।

দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তাদের ভাষ্য, উত্তর কোরিয়া সাবমেরিন থেকে একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে। উত্তর কোরিয়ার ওনসান বন্দরের কাছ থেকে ক্ষেপণাস্ত্রটি ছোড়া হয়। ক্ষেপণাস্ত্রটি ৪৫০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে জাপান সাগরে গিয়ে পড়ে।

দক্ষিণ কোরিয়ার দাবি সত্য হলে উত্তর কোরিয়া যে ক্ষেপণাস্ত্র প্রকল্পে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি অর্জন করেছে, সবশেষ ঘটনা সেটাই নির্দেশ করে।

উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের খবর ছড়িয়ে পড়লে আন্তর্জাতিক মহল তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখায়। এ নিয়ে দক্ষিণ কোরিয়াও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে বলেছেন, উত্তর কোরিয়া জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের গৃহীত প্রস্তাব লঙ্ঘন করেছে। ওই প্রস্তাবে উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তি ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়।

কথিত ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের কয়েক ঘণ্টা আগেই পিয়ংইয়ং জানিয়েছিল, ওয়াশিংটনের সঙ্গে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ আলোচনা চলতি সপ্তাহের শেষ দিকে ফের শুরু হতে পারে।

পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ প্রশ্নে গত ফেব্রুয়ারিতে হ্যানয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের মধ্যে সবশেষ বৈঠক হয়। বৈঠকটি কোনো ধরনের সমঝোতা ছাড়াই শেষ হয়। হ্যানয় বৈঠকের পর পরমাণু আলোচনায় অচলাবস্থা বিরাজ করছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0