বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অভিযুক্ত ঝ্যাংয়ের বয়স এখন ৭৫ বছর। ২০১৩ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত তিনি চীনের উপপ্রধানমন্ত্রী ছিলেন। ঝ্যাং চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিংয়ের ঘনিষ্ঠ।

টেনিস তারকা পেং শুয়াই উইবো পোস্টে লিখেছেন, ‘আপনাদের কাছে বিশিষ্ট ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত একজনকে আমি চিনি। তিনি হলেন উপপ্রধানমন্ত্রী ঝ্যাং গাওলি। আপনারা বলবেন, আপনি ভীত নন। আপনারা হয়তো এটাকে আগুন নিয়ে খেলে ধ্বংস হওয়ার কথা বলবেন। কিন্তু আমি আপনাদের সত্যটা জানাব।’

পেংয়ের অভিযোগ, টেনিস খেলার জন্য একবার ঝ্যাংয়ের বাড়িতে যাওয়ার পর তিনি প্রথমবার নিপীড়নের শিকার হন। তিনি লিখেছেন, ‘ওই দিন বিকেলে আমি বাধ্য হয়েছিলাম। কান্না থামাতে পারছিলাম না। আপনি (ঝ্যাং গাওলি) আমাকে আপনার ঘরে নিয়ে গেলেন এবং (শারীরিক) সম্পর্ক তৈরিতে বাধ্য করলেন।’

পেং শুয়াই (৩৫) অবশ্য স্বীকার করেছেন, তিনি এই অভিযোগের পক্ষে কোনো প্রমাণ দিতে পারবেন না।

এই টেনিস তারকা লিখেছেন, ‘আমার কাছে কোনো প্রমাণ নেই এবং এর কোনো প্রমাণ রেখে যাওয়া অসম্ভব। আপনি সব সময় ভয়ে ছিলেন যে আমি হয়তো প্রমাণ রাখার জন্য কোনো টেপ রেকর্ডার বের করব। কিন্তু আমার কাছে অডিও রেকর্ড বা ভিডিও ফুটেজ নেই। শুধু রয়েছে বিকৃত কিন্তু সত্যিকার এক অভিজ্ঞতা।’

টেনিস ক্যারিয়ারে পেং শুয়াই দুবার উইমেন ডাবলসে গ্রান্ড স্ল্যাম জিতেছেন। প্রথমবার ২০১৩ সালে উইম্বলডনে এবং দ্বিতীয়বার ২০১৪ সালে রোল্যান্ড গ্যারস টুর্নামেন্টে। দুবারই তাঁর গ্রান্ড স্ল্যাম জয়ের সঙ্গী ছিলেন তাইওয়ানের জনপ্রিয় টেনিস তারকা সেই সু-ওয়েই।

চীনে যৌন নিপীড়ন নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে যেসব #মিটু অভিযোগ উঠেছে, এর মধ্যে অন্যতম এই টেনিস তারকার উইবো পোস্ট। ২০১৮ সালে একজন জনপ্রিয় টিভি উপস্থাপক ঝৌ শিয়াজুয়ান একটি অনলাইন নিবন্ধে এমন অভিযোগ তোলেন। তাঁর অভিযোগ ছিল দেশটির আরেক টিভি ব্যক্তিত্ব ঝু জানের বিরুদ্ধে।

চীন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন