default-image

ইতালি সরকার তাদের দেশে তৈরি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাসের টিকা অস্ট্রেলিয়াতে রপ্তানির একটি চালান আটকে দিয়েছে। এই চালানের মাধ্যমে ইতালি থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনার টিকার আড়াই লাখ ডোজ অস্ট্রেলিয়াতে রপ্তানি হওয়ার কথা ছিল।

বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউরোপীয় ইউনিয়নের নতুন নিয়ম অনুযায়ী টিকা সরবরাহকারী কোনো কোম্পানি যদি ইইউর বাধ্যবাধকতা পূরণে ব্যর্থ হয় তাহলে তারা রপ্তানি বন্ধ করে দিতে পারবে। অস্ট্রেলিয়ায় অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা রপ্তানি বন্ধের মাধ্যমে প্রথম এই নিয়মটি প্রয়োগ করল ইতালি। ইতালির এই পদক্ষেপে সমর্থন জানিয়েছে ইউরোপীয় কমিশন।

বিজ্ঞাপন

গত সপ্তাহেই ইইউর কাছে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে পাঠানো অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার এই চালানটি আটকে দেওয়ার কথা জানিয়েছিল ইতালি।

এ বিষয়ে ইতালির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি অনুমোদনের জন্য তারা আবেদন পেয়েছিল। এর আগের আবেদনটি তারা অনুমোদন করেছিল। কারণ তাতে বলা হয়েছিল বৈজ্ঞানিক গবেষণার জন্য কিছু স্যাম্পল পাঠানো হবে। কিন্তু সবশেষ আবেদনটি আড়াই লাখ ডোজের বেশ বড় চালান। ফলে আবেদনটি প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, অস্ট্রেলিয়া ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকায় নেই। ইইউ ও ইতালিতে টিকার ঘাটতি রয়েছে। ইতালি ও ইইউতে সামগ্রিকভাবে যে টিকা সরবরাহ করা হয়েছে তার তুলনায় অস্ট্রেলিয়া রপ্তানির জন্য আবেদন করা এই চালানটি অনেক বড়।

অ্যাস্ট্রাজেনেকা বছরের প্রথম তিন মাসে ইইউ সদস্য দেশগুলোকে রপ্তানি চুক্তির ৪০ শতাংশ সরবরাহের পথে রয়েছে। সরবরাহ ঘাটতির জন্য কোম্পানিটির পক্ষ থেকে উৎপাদন স্বল্পতার কথা বলা হয়েছে।

গত জানুয়ারিতে ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ কোঁতে অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও ফাইজারের টিকা সরবরাহে বিলম্ব হওয়াকে অপ্রত্যাশিত বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ তোলেন।

গত বছরের জুনে ইউরোপীয় ভ্যাকসিন স্কিমের আওতায় ইউরোপিয়ান কমিশন তাদের সদস্য দেশগুলোর পক্ষে টিকা কিনতে আলোচনা করেছিল।

এদিকে ইতালির এই পদক্ষেপের পর অস্ট্রেলিয়া, ইইউ বা অ্যাস্ট্রাজেনাকার পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য দেওয়া হয়নি।

গত সপ্তাহে ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা দিয়ে করোনার টিকা কার্যক্রম শুরু করে অস্ট্রেলিয়া। শুক্রবার থেকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা তাদের টিকা কার্যক্রমে যুক্ত হওয়ার কথা ছিল।

বিজ্ঞাপন
ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন