default-image

করোনায় আক্রান্ত এক এমপির সঙ্গে বৈঠক করায় ‘সেলফ আইসোলেশনে’ রয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। গতকাল রোববার ডাউনিং স্ট্রিটের এক মুখপাত্র এ কথা জানিয়েছেন।

এএফপির খবরে এ কথা বলা হয়েছে, সেলফ আইসোলেশনে থাকাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও চিকিৎসকদের পরামর্শে ডাউনিং স্ট্রিট থেকে বরিস জনসন তাঁর কার্যক্রম চালিয়ে যাবেন। দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য বিভাগ এনএইচএস বরিস জনসনকে সেলফ আইসোলেশনে থাকতে পরামর্শ দিয়েছে। তাঁর একজন মুখপাত্র বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভালো আছেন এবং তাঁর কোভিড-১৯-এর কোনো লক্ষণও নেই।

বিজ্ঞাপন

বরিস জনসন কত দিন আইসোলেশন থাকবেন, সে সম্পর্কে ডাউনিং স্ট্রিট থেকে কিছু বলা হয়নি। তবে যুক্তরাজ্যের জাতীয় স্বাস্থ্যসেবার নিয়ম অনুযায়ী ১৪ দিনের জন্য আইসোলেশনে থাকা উচিত।

বরিস জনসন গত বৃহস্পতিবার ডাউনিং স্ট্রিটে কয়েকজন পার্লামেন্ট সদস্যের সঙ্গে ৩৫ মিনিট ধরে এক বৈঠক করেন। এরপরই বরিস জনসনের সরকারি বাসভবন ডাউনিং স্ট্রিট থেকে বলা হয়েছে, ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এমন একজনের মধ্য কোভিড-১৯-এর লক্ষণগুলো দেখা যায়। তাই এরপরই প্রধানমন্ত্রী আইসোলেশনে চলে যান।

এর আগে গত এপ্রিলে করোনায় আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন লন্ডনের সেন্ট থমাস হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিন রাত।

যুক্তরাজ্যে এখন পর্যন্ত ৫০ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। ১৩ লাখ মানুষ করোনা পজিটিভ হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0