যদিও ইউক্রেনের দাবি, তাদের নেপচুন ক্ষেপণাস্ত্রের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে ডুবেছে মস্কভা। ওই ঘটনার এক মাস পর আরও একটি রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজডুবির খবর পাওয়া গেল।

নতুন রুশ যুদ্ধজাহাজ ধ্বংসের বিষয়ে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, কৃষ্ণসাগরের স্নেক আইল্যান্ডে ভেড়ানো রুশ যুদ্ধজাহাজটিতে হামলা চালানো হয় বেরাকতার ড্রোন ব্যবহার করে। জাহাজে আগুন জ্বলছে, এমন একটি ভিডিও ফুটেজ টু্ইটারে পোস্ট করেছে মন্ত্রণালয়টি।

ইউক্রেনের মন্ত্রণালয়টি এক টুইট বার্তায় আরও বলেছে, বিজয় দিবস (ডি ডে) উপলক্ষে আগামীকাল (৯ মে) স্নেক আইল্যান্ডের কাছে সমুদ্রের তলদেশে মহড়া করবে কৃষ্ণসাগরে মোতায়েন রুশ যুদ্ধজাহাজের বহর।

৯ মে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সোভিয়েত ইউনিয়নের (বর্তমান রাশিয়া) বিজয় দিবস। ১৯৪৫ সালের এই দিনে হিটলারের নাৎসি বাহিনীর পরাজয় ঘটে। তারপর থেকেই রাশিয়া দিনটি স্মরণ করে আসছে।

রুশ যুদ্ধজাহাজে হামলার ঘটনার একটি স্যাটেলাইট চিত্র প্রকাশ করেছে মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি। সেখানে দেখা গেছে, গত শুক্রবার স্নেক আইল্যান্ডে রাশিয়ার স্থাপনা লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা চালায় ইউক্রেন। সেখান থেকে তীব্র কালো ধোঁয়া উড়তে দেখা গেছে।

প্রকাশিত ছবিতে স্নেক আইল্যান্ডের উত্তর দিকের সৈকতে রাশিয়ান নৌবাহিনীর সেরনা-ক্লাস ল্যান্ডিং ক্রাফটের উপস্থিতি দেখা গেছে। এ ছাড়া ইউক্রেনের সেনাবাহিনীও একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে। সেখানে দেখা গেছে, ইউক্রেনের ড্রোন জাহাজটিতে হামলা করছে। এর পরপরই জাহাজটি ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে যায়।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন