default-image

আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যকার সংঘর্ষ অবিলম্বে বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব। সোমবার বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস গতকাল রোববার সংঘাত বন্ধের এই আহ্বান জানান।

আন্তোনিও গুতেরেসের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেন, নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে নতুন করে সংঘাত শুরু হওয়ায় জাতিসংঘের মহাসচিব অত্যন্ত উদ্বিগ্ন।

মুখপাত্র বলেন, জাতিসংঘ মহাসচিব অবিলম্বে উভয় পক্ষকে এই যুদ্ধ বন্ধের জন্য দৃঢ়ভাবে আহ্বান জানিয়েছেন। উত্তেজনা প্রশমন করতে বলেছেন। কোনো ধরনের বিলম্ব ছাড়াই অর্থপূর্ণ আলোচনায় ফেরার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

দুই দেশের সীমান্তে গতকাল ব্যাপক সংঘর্ষ ও গোলাগুলি হয়। এই সংঘর্ষে অন্তত ২৩ জন নিহত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে।

নতুন করে সংঘাত শুরুর জন্য আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান পরস্পরকে দোষারোপ করেছে।

নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে অনেক বছর ধরে বৈরী সম্পর্ক বিদ্যমান। দুই দেশের সীমান্তে গতকাল ইয়েরেভান ও আজেরি বাহিনীর মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ-গোলাগুলির পর পরিস্থিতি যুদ্ধাবস্থায় উপনীত হয়।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আর্মেনীয় সরকার সামরিক আইন জারি করে নিজ জনগণকে দেশ রক্ষার প্রস্তুতি নিতে বলেছে।

বিজ্ঞাপন

আর্মেনিয়ার দাবি, প্রথমে আজেরি বাহিনী নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলে তাদের বাহিনী লক্ষ্য করে গোলা ছোড়ে।

অন্যদিকে আজারবাইজানের অভিযোগ, আর্মেনিয়ার বাহিনীই প্রথম তাদের সেনা বেসামরিক স্থাপনা লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ করে।

আর্মেনিয়ার ভাষ্য, আজারবাইজানের হামলার জবাবে আর্মেনীয় সেনারা তাদের তিনটি ট্যাংক ধ্বংস এবং দুটি হেলিকপ্টার ও তিনটি মনুষ্যবিহীন আকাশযান ভূপাতিত করেছে।

আজারবাইজানের ভাষ্য, সীমান্তে শত্রুদের হটিয়ে দিয়েছে তাদের সেনাবাহিনী। এর আগে আর্মেনিয়ার ব্যাপক গোলাবর্ষণে তাদের দেশের কিছু বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন।

মন্তব্য পড়ুন 0