বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান সরকার নতুন সংঘর্ষের জন্য পরস্পরকে দায়ী করেছে। গত বছর নাগর্নো-কারাবাখ অঞ্চলে দেশ দুটির সেনাবাহিনীর মধ্যে ছয় সপ্তাহের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর এটাই বড় ধরনের সংঘর্ষের ঘটনা। গত বছরের ওই যুদ্ধে সাড়ে ছয় হাজারের বেশি মানুষ নিহত হন।

মঙ্গলবারের হতাহতের ঘটনায় দুটি দেশের মধ্যে আঞ্চলিক বিরোধে আরও বড় আকার ধারণ করবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই সোইগু আর্মেনিয়া ও আজারবাইজান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনার পর ওই সংঘর্ষ আপাতত থেমেছে।

আর্মেনিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, আজারবাইজানের সেনারা আর্মেনীয়দের ওপর গুলি চালিয়েছে। অপরদিকে আজারবাইজানের সরকার আর্মেনিয়ার বিরুদ্ধে ব্যাপক পরিসরে উসকানি দেওয়ার অভিযোগ করেছে। সীমান্তের অস্থিতিশীল পরিস্থিতি নিয়ে আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনিয়ান রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে কথা বলেছেন।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন